জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ২০২২ । জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে কত টাকা লাগে ?

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ২০২২ । জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে কত টাকা লাগে ?

আপনার সন্তান বা আপনার নিজের জন্ম নিবন্ধন না করে থাকলে আজই করে ফেলুন অনলাইনে আবেদন – অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদনের সুবিধা হচ্ছে ভুলত্রুটি খুবই কম হবে কারণ নিজের তথ্য নিজেই এন্ট্রি করবেন – জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ২০২২

জন্ম নিবন্ধন করবেন ভাবছেন, আর ভাবনা নয় সপ্ন এখন সত্যি, দেশ এখন ডিজিটাল, ইউ‌নিয়ন ডি‌জিটাল সেন্টার/ অনলাইন সার্ভিস/ দোকানে বা নিজ মোবাইলে ঘরে বসে আপনি আপনার নিজের বা শিশুর জন্ম নিবন্ধন করতে পারবেন। আর নয় ঘুরাঘুরি সেবা পাবে নিজ পরিবার।

New Rules to apply for birth certificate online– আপনি নিজে মোবাইল বা পার্সোনাল কম্পিউটার ব্যবহার করে খুব সহজেই নিজের সন্তানের জন্ম নিবন্ধন করে ফেলতে পারেন। জন্ম নিবন্ধন সহজীকরণের জন্য পিতা মাতার জন্ম নিবন্ধন ও জাতীয় পরিচয়পত্র তথ্য প্রদানের বিষয়টি শিথিল করা হয়েছে। Online NID correction Step by step । জন্ম নিবন্ধন সনদ সংশোধন নিয়ম ২০২২

জন্ম নিবন্ধনের ক্ষেত্রে টিকা কার্ড ব্যবহার করুন এবং পিতা/ মাতার এনআইডি কার্ডের ছবি ঠিকানা ভেরিফিকেশনের জন্য ব্যবহার করাই ভাল। তবে আপনি বাড়ি বা জমির খাজনার রশিদও ব্যবহার করতে পারবেন ঠিকানা ভেরিফিকেশনের জন্য। তাই দেরী না করে এখনই জন্ম নিবন্ধন করে ফেলুন। নতুন জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করতে যা যা লাগবে।

আরও দেখুন: প্রবাসীদের ভোটার হওয়ার নিয়ম ২০২২ । বিদেশ থেকে ফিরেছেন, ভোটার হতে চান?

পিতা মাতার জন্ম সনদ নম্বর এবং জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর প্রদান বাধ্যতামূলক নয় / জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন পদ্ধতি ২০২২

প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট ২০২২ – সন্তানের জন্ম প্রমানের জন্য টিকা কার্ড এবং পিতা মাতার এনআইডি বা বাড়ির খাজনা রশিদ হাতে নিয়ে বা স্ক্যান করে নিয়ে বসে পড়ুন। স্ক্যান করে যে ডকুমেন্ট আপলোড করবেন সেগুলো অবশ্যই হার্ড কপি জমা দেয়ার সময় সংযুক্ত করে দিবেন। জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন ২০২২ । পিতা মাতার জন্ম নিবন্ধন ও NID ছাড়াই আবেদন করা যাবে

কেন জন্ম নিবন্ধন করা জরুরি? জন্ম নিবন্ধন আবেদন – কোন ব্যক্তির বয়স প্রমাণের জন্য জন্ম নিবন্ধন আইনের ধারা ১৮ এর উপ-ধারা (৩) এ বলা হয়েছে। উক্ত ধারায় বর্ণিত ক্ষেত্রসমূহের অতিরিক্ত নিম্নবর্নিত ক্ষেত্রসমূহে জন্ম নিবন্ধন সনদ বা উহার সত্যায়িত অনুলিপি ব্যবহার করা যাইবে, যথা: (ক) কোন ব্যাংক হিসাব খোলা; (খ) আমদানি ও রপ্তানি লাইসেন্স প্রাপ্তির আবেদন; (গ) গ্যাস, পানি, টেলিফোন ও বিদ্যুৎ সংযোগ প্রাপ্তি;(ঘ) ট্যাক্স আইডেন্টিফিকেশন নম্বর প্রাপ্তি; (ঙ) ঠিকাদারী লাইসেন্স প্রাপ্তি; (চ) বাড়ির নক্সার অনুমোদন প্রাপ্তি; (ছ) গাড়ির রেজিস্ট্রেশন প্রাপ্তি; (জ) ট্রেড লাইসেন্স প্রাপ্তি; (ঝ) টিকাদান কর্মসূচিসহ যে কোন চিকিৎসা সেবা প্রাপ্তি; (ঞ) স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহের নিকট হইতে যে কোন সেবা প্রাপ্তি এবং (ট) সরকার কর্তৃক সরকারি গেজেটে প্রজ্ঞাপন দ্বারা নির্ধারিত অন্য যে কোন ক্ষেত্রে।

জন্ম নিবন্ধন এখন খুবই সহজ–জন্ম নিবন্ধনে ভুল ভ্রান্তি এড়াতে অনলাইনে নিজের জন্ম নিবন্ধন নিজেই সম্পন্ন করতে পারবেন। তাছাড়া বাবা মা চাইলে তার সন্তানের জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করতে পারেন। দেশের নাগরিক হিসেবে জন্ম নিবন্ধন কাজটি অবশ্যই সম্পন্ন করতে হবে। প্রথমত আপনি অনলাইনে আপনি জন্ম নিবন্ধন আবেদন করে প্রিন্ট কপি ও কাগজপত্র নিয়ে ইউপি বা পৌরসভায় উপস্থিত হয়ে নির্ধারিত ফি প্রধান করে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে হবে। আবেদন করার ৩-৭ দিনের মধ্যেই আপনি জন্ম নিবন্ধন সনদ পেয়ে যাবেন।

আরও দেখুন- জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি কাগজপত্র লাগে । নাগরিকের টিকা কার্ডের বিকল্প কি?

জন্ম নিবন্ধন করতে ঠিক কত টাকা খরচ হয়? – শিশু জন্মের ৪৫ দিন পর্যন্ত জন্ম নিবন্ধন ফ্রি করানো যায় – জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন না করলে ৫০০০ টাকা জরিমানা

জন্মের পরই শিশু জন্ম নিবন্ধন করা জরুরি –জন্ম নিবন্ধন করা না থাকলে মৃত্যু নিবন্ধনও করা যায় না। তাই জন্ম নিবন্ধন যত তারাতারি সম্ভব করে ফেলুন জন্ম নিবন্ধন বা মৃত্যু নিবন্ধন ছাড়া ওয়ারিশান সনদও প্রদান করা হবে না। জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার নিয়ম ২০২২

জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইন ২০১৩ এর ২১। দণ্ড(১) এই আইন বা তদধীন প্রণীত বিধির কোন বিধান লঙ্ঘনকারী ব্যক্তি অনধিক ৫ (পাঁচ) হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডনীয় হইবেন। (২) উপ-ধারা (১) এ যাহা কিছুই থাকুক না কেন, যদি কোন ব্যক্তি জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধনের জন্য মিথ্যা তথ্য প্রদান করেন বা এমন কোন লিখিত বর্ণনা বা ঘােষণা প্রদান করেন, যাহা তিনি মিথ্যা বলিয়া জানেন বা বিশ্বাস করেন, তাহা হইলে উক্ত ব্যক্তি অনধিক ৫ (পাঁচ) হাজার টাকা অর্থদণ্ডে অথবা অনধিক ১ (এক) বৎসর বিনাশ্রম কারাদণ্ডে অথবা উভয়দণ্ডে দণ্ডনীয় হইবেন। জন্ম নিবন্ধন ফি কত টাকা ২০২২

(৩) উপ-ধারা (১) এ যাহা কিছুই থাকুক না কেন, যদি কোন নিবন্ধক উপ-ধারা (২) এ উল্লিখিত মিথ্যা তথ্য, লিখিত বর্ণনা বা ঘােষণা সম্পর্কে জ্ঞাত থাকা সত্ত্বেও জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন করেন তাহা হইলে সংশ্লিষ্ট নিবন্ধক অনধিক ৫ (পাঁচ) হাজার টাকা অর্থদণ্ডে অথবা অনধিক এক বৎসর বিনাশ্রম কারাদণ্ডে অথবা উভয়দণ্ডে দণ্ডনীয় হইবেন, যদি না তিনি প্রমাণ করিতে সক্ষম হন যে উক্ত অপরাধ তাঁহার অজ্ঞাতসারে সংঘটিত হইয়াছে অথবা উক্ত অপরাধ রােধ করিবার জন্য তিনি যথাসাধ্য চেষ্টা করিয়াছেন।” জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইন ২০১৩ । জন্ম নিবন্ধন না করালে ৫০০০ টাকা জরিমানা হতে পারে

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ২০২২ । জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে কত টাকা লাগে ?

Caption: Birth Registration Certificate Sample

New Birth Registration Only parents name । নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন এখন আরও সহজ!

জন্ম নিবন্ধন আবেদন ও সংশোধন সহজ হল- নতুন জন্ম নিবন্ধন করতে পিতা মাতার জন্ম নিবন্ধন সনদ এবং এনআইডি বাধ্যতামূলক ছিল। কিন্তু সরকার জটিলতা নিরসনে পিতা বা মাতা দুজনের ক্ষেত্রেই নিবন্ধন নম্বর ও জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর না দিলেও হবে। শুধুমাত্র পিতা মাতার নাম দিলেই হবে। জন্ম প্রমানক হিসেবে টিকা কার্ড এবং স্থায়ী ঠিকানার জন্য জমি বা বাড়ির খাজনা রশিদ বা বিদ্যুৎ বিলের কপি জমা দিলেই হবে। জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন ২০২২ । পিতা মাতার জন্ম নিবন্ধন ও NID ছাড়াই আবেদন করা যাবে। জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন না করলে ৫০০০ টাকা জরিমানা । ভুল তথ্য প্রদানে জন্ম নিবন্ধন দন্ডনীয় অপরাধ

জন্ম নিবন্ধন আবেদন অনলাইনে করুন। নিজের মোবাইল থেকেও আবেদন করতে পারবেন। যদি সেটি না পারেন বা নিজে না বুঝেন তবে আপনি আপনার কোন সহকর্মী, বন্ধুর সহায়তা নিন। তাতেও যদি ব্যর্থ হউন তবে কম্পিউটারের দোকানে গিয়ে ৫০-১০০ টাকা ব্যয় করে নিজেই করিয়ে নিন। যদি আপনি হার্ড কপি বা ফরম পূরণ করে ইউপিতে জমা দিয়ে আসেন তবে উদ্যোক্তা বা ইউপি কর্তৃপক্ষ ইচ্ছাকৃত বা অনিচ্ছাকৃত ভাবে ভুল করতে কোন তথ্য এন্ট্রি বা টাইপ করার সময়। সেটি সংশোধনের জন্য আবার আপনাকেই দৌড়াতে হবে। অনেকেই বেশি ফি নেয় সেক্ষেত্রে? মূলত যে ইউপিতে উদ্যোক্তারা কাজ করে তারা একটু বেশি ফি নেয় তবে সেটি যেন খুব বেশি না হয়। কারণ উদ্যোক্তাদের কোন বেতন দেয়া হয় না ৫০ টাকার স্থলে ১০০ টাকা দিবেন তার বেশি নয়। জন্ম নিবন্ধন ফি ২০২২ । জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি অনলাইনে প্রদানের নিয়ম

নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার পদ্ধতি ২০২২ । New Process of Birth Registration

নতুন নিয়মে জন্ম নিবন্ধন এখন আরও সহজ করা হল – পিতা মাতার জন্ম নিবন্ধন ও এনআইডি কিছুই লাগবে না – শুধু পিতা মাতার নাম দিয়েই জন্ম নিবন্ধন ২০২২

নতুন জন্ম নিবন্ধন করার নিয়ম ২০২২

  • Visit: bdris.gov.bd/br/application
  • Select জন্মস্থান/ স্থায়ী ঠিকানা/ বর্তমান ঠিকানা
  • Input নিবন্ধনাধীন ব্যক্তির পরিচিতি তথ্য- নাম, জন্ম তারিখ লিঙ্গ ইত্যাদি দিয়ে “আমার কাছে এই ডকুমেন্টগুলি আছে” সিলেক্ট করুন এবং জন্মস্থানের ঠিকানা তথ্য এবং ক্লিক পরবর্তী
  • Input পিতা মাতার তথ্য -শুধু ইংরেজী বাংলায় নাম দিলেও হবে এবং ক্লিক পরবর্তী
  • কোনটিই নয় সিলেক্ট করুন এবং জন্ম স্থানের ঠিকানা ও স্থায়ী ঠিকানা একই এর পাশ্বে টিক দিন এবং আবার কোনটিই নয় সিলেক্ট করুন এবং স্থায়ী ঠিকানা ও বর্তমান ঠিকানা একই সিলেক্ট করুন। ক্লিক করুন পরবর্তী
  • পিতা, মাতার ব্যতিরেকে  অন্য কেহ হইলে তার জন্ম নিবন্ধন ও জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর দিতে হবে। যেতেহু পিতা মাতাই এ কাজ করে তাই পিতা বা মাতা সিলেক্ট করে ফোন নম্বর দিন।
  • সংযুক্তি হিসেবে স্ক্যান টিকা কার্ড ও পিতা/মাতার এনআইডি বা বাড়ির খাজনা রশিদ এর ছবি আপলোড করুন। ছবির সাইজ বড় থাকলে আপনি মোবাইলে স্ক্রীনশট নিয়ে আপলোড করুন।
  • দুটি ফাইল আপলোড Start এ ক্লিক করে সম্পন্ন নিশ্চিত করুন। (আবেদেনর ক্ষেত্রে এটিই কঠিন কাজ, ধৈর্য্য ধরে সম্পন্ন করুন) এবং ক্লিক করুন পরবর্তী
  • যে সকল তথ্য দিয়েছেন তার সামারি বা সারসংক্ষেপ দেখতে পাবেন, তথ্য সব দেখে পড়ে বুঝে সাবমিট ক্লিক করুন ব্যস আবেদন শেষ।
  • আবেদন প্রিন্ট করুন ক্লিক করে প্রিন্ট করে নিন। ডকুমেন্ট যুক্ত করে ইউপিতে (ইউনিয়ন পরিষদ) জমা দিন।

আবেদনের সাথে কি ছবি দিতে হবে?

অবশ্যই। প্রিন্টকৃত ফর্মে ছবির ঘর রয়েছে ছবি যুক্ত করে। যথাস্থানে স্বাক্ষর করে। প্রয়োজনীয় দুটি ডকুমেন্ট যুক্ত করে আবেদন সম্পন্ন করুন। যদি আপনার নিজের আবেদন হয় আপনার যদি টিকা কার্ড না থাকে তবে আপনি জন্ম তারিখ প্রমানের জন্য উপযুক্ত ডকুমেন্ট দিন। Nidw । জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনের জন্য করণীয় ২০২২ 

ম্যানুয়াল ফর্ম বা নিবন্ধন ফরম সংগ্রহ করুন– জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম ডাউনলোড pdf

Birth or Death Registration Manual Process 2022 – Collect Form from the link and Fill it up, After properly finishing filup, go to union parishad or Pouroshova or city corporation to submit your form. You can collect Blank form from UP or City corporation office. জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম ডাউনলোড pdf । Birth or Death Registration Manual Process 2022

জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন সংশোধন ফি– জন্ম তারিখ সংশোধনের জন্য আবেদন ফি ১০০ টাকা। জন্ম তারিখ ব্যতিত নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, ঠিকানা ইত্যাদি অন্যান্য তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন ফি ৫০ টাকা বাংলাদেশে জন্ম হলে। শুধুমাত্র বাংলা ও ইংরেজী উভয় ভাষায় মূল সনদ বা তথ্য সংশোধনের পর সনদের কপি সরবরাহ পাওয়া যাবে বিনা ফিসে।

BDRIS without Parents Birth Registration No । শিশু জন্ম নিবন্ধন করতে পিতা-মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর লাগবে না।

জন্ম নিবন্ধন করাতে পিতা মাতার জন্ম নিবন্ধন লাগবে না? – না লাগবে না। রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়, জন্ম ও মৃত্যুনিবন্ধন’ বলছে, ২৭ জুলাই থেকে জন্মনিবন্ধনের আবেদন করতে গেলে সফটওয়্যারে মা-বাবার জন্মসনদ চাওয়া হচ্ছে না। এতে বিয়ে বিচ্ছেদ হওয়া পরিবারের সন্তান, যাদের মা কিংবা বাবা যেকোনো একজনের সঙ্গে যোগাযোগ নেই এবং পথশিশুদের জন্মনিবন্ধন করতে যে জটিলতা ছিল, তা কাটবে বলে মনে করছেন ভোগান্তির শিকার মানুষেরা এবং অনলাইনেও কার্যকর রয়েছে ফলে জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন এখন কিছুটা হলেও সহজ হল।

জন্মনিবন্ধন নিয়ে জনভোগান্তির বিষয় বিবেচনায় নিয়ে মা-বাবার জন্মনিবন্ধনের বাধ্যবাধকতা তুলে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন রেজিস্ট্রার জেনারেল মির্জা তারিক হিকমত। গতকাল রোববার প্রথম আলোকে তিনি বলেন, ‘২৭ জুলাই থেকে অনলাইনে জন্মনিবন্ধনের আবেদন নেওয়ার সফটওয়্যারে পরিবর্তন আনা হয়েছে। এখন যাঁরা শিশুর জন্মনিবন্ধনের জন্য আবেদন করবেন, তাঁদের কাছে আগের মতো মা-বাবার জন্মসনদ চাওয়া হবে না। bdris gov bd login । জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন কিভাবে করে?

জন্ম নিবন্ধন ফি কত?

  • জন্ম বা মৃত্যুর ৪৫ (পঁয়তাল্লিশ) দিন পর্যন্ত কোন ব্যক্তির জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন বিনা ফিসে নিবন্ধন করা যাবে।
  • জন্ম বা মৃত্যুর ৪৫ (পঁয়তাল্লিশ) দিন পর হইতে ৫ (পাঁচ) বৎসর পর্যন্ত কোন ব্যক্তির জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন (সাকুল্যে) ২৫ টাকা দেশে নিবন্ধন করা যাবে।
  • জন্ম বা মৃত্যুর ৫ (পাঁচ) বৎসর পর কোন ব্যক্তি জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন (সাকুল্যে) ৫০ টাকা দেশে নিবন্ধন করা যাবে।
  • জন্ম তারিখ সংশোধনের জন্য আবেদন ফি ১০০  টাকা।
  • জন্ম তারিখ ব্যতিত নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, ঠিকানা ইত্যাদি অন্যান্য তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন ফি ৫০ টাকা বাংলাদেশে জন্ম হলে।
  • বাংলা ও ইংরেজী উভয় ভাষায় মূল সনদ বা তথ্য সংশোধনের পর সনদের কপি সরবরাহ পাওয়া যাবে বিনা ফিসে।
  • বাংলা ও ইংরেজী উভয় ভাষায় নকল সরবরাহ পাওয়া যাবে ৫০ টাকা ফি জমা করে।

জন্ম নিবন্ধন ফি ২০২২ । জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি অনলাইনে প্রদানের নিয়ম

Birth Registration Fee 2022 –জন্ম নিবন্ধন মূলত সন্তান জন্মের ৪৫ দিনের মধ্যেই সম্পন্ন করে ফেলা উত্তম। অনেকেই বয়স কমানোর ধান্দায় থাকেন এটি করা কোন ভাবেই ঠিক নয়, জন্মটাই যদি ভুল বা অসত্য দিয়ে শুরু হয়, তবে জন্মই যেন মিথ্যা দিয়ে শুরু হল। চাকরি বা রিজিক আল্লাহ তা’য়ার হাতে কথাটি বিশ্বাস করলে কোন ভাবেই এটি ভাবা ঠিক হতে পারে না যে, জন্ম কয়েক বছর পরে দেখালে চাকরি পাওয়া সুযোগ বেড়ে যাবে।

জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনের ফি বাবদ প্রাপ্ত অর্থ চালানের মাধ্যমে জমা সংক্রান্ত তথ্য BDRIS-এ প্রবেশ করাতে গেলে অনেক সময় ফাইল আপলোড করা যায় না বা নানা রকম সমস্যা দেখা দেয়। জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন বিধিমালা ২০১৮-এর বিধি ২১ (৬) অনুযায়ী প্রতি মাসে আদায়কৃত অর্থ পরবর্তী মাসের ৭ তারিখের মধ্যে সরকারি তহবিলে জমা প্রদান বাধ্যতামূলক। জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার ফি ২০২২

আরও দেখুন- জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার ফি ২০২২

জন্ম নিবন্ধন নিয়ে প্রশ্নোত্তর পর্ব

জন্মের ৪৫ দিনের মধ্যে কিংবা পরবর্তী সময়েও নিবন্ধন করতে অনেক সময় পিতা মাতার জন্ম নিবন্ধন পাওয়া যায় না, করণীয় কী?

জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইন ২০০৪ অনুযায়ী জন্ম নিবন্ধন সকলের জন্য ব্যধ্যতামূলক (ধারা ৫(১), ৬ক এবং ৮(১)) । আইনের এ নির্দেশনা কেউ না মানলে তিনি আইন লঙ্ঘনকারী হিসাবে গণ্য হবেন এবং অনধিক ৫০০০ টাকা অর্থ দণ্ডে দণ্ডিত হতে পারেন। তাছাড়া, এখন বিদ্যালয়ে ভর্তি, চাকরিতে নিয়োগ, পাসপোর্ট, জাতীয় পরিচয় পত্রসহ ১৯ টি ক্ষেত্রে জন্ম সনদ আবশ্যক। আবার জন্ম নিবন্ধন ব্যতীত কোন ব্যক্তির মৃত্যু নিবন্ধন করা যাবে না। মৃত্যু নিবন্ধন না হলে উত্তরাধিকার নিশ্চিত করা যাবে না।

বিষয়টি এভাবে বুঝিয়ে বললে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি জন্ম নিবন্ধনে আগ্রহী হবেন। সন্তানের জন্ম নিবন্ধনের সঙ্গে পিতা মাতার জন্ম নিবন্ধন অপেক্ষাকৃত সহজ। কারণ সন্তানের জন্ম নিবন্ধনের জন্য যে তথ্যাদি/রেকর্ডপত্র প্রয়োজন তার সঙ্গে পিতামাতার শুধু বয়স প্রমাণের রেকর্ড (শিক্ষা সনদ বা আইনের ৭(১) ধারা অনুযায়ী তদন্তসহ এনআইডি) যোগ করলেই অতি সহজে তাদের জন্ম নিবন্ধন করা সম্ভব। বিষয়টিকে সমস্যা হিসাবে না দেখে ‘সুযোগ’ হিসাবে দেখা যেতে পারে।

তাছাড়া, জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনের শুদ্ধ ডাটাব্যাজের জন্য ‘ফ্যামিলি ট্রি’ আন্তর্জাতিকভাবে গৃহীত একটি উত্তম চর্চা। বাংলাদেশ এটি গ্রহণ করেছে। এই পদ্ধতিতে সন্তানের জন্ম নিবন্ধনের সঙ্গে পিতা-মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর যুক্ত করে একটি পারিবারিক কাঠামো তৈরি করা হয়, যাতে পিতা-মাতার সন্তানের সংখ্যা এবং তাদের ক্রমিক নম্বর জানা যায়। এর মাধমে উত্তরাধিকার নিশ্চিত হয় এবং অনৈতিকভাবে বয়স বা অন্যান্য তথ্য পরিবর্তনের প্রবণতা রোধ করা সম্ভব হয়। এই পদ্ধতি বাংলাদেশে ভবিষ্যতে ‘পপুলেশন রেজিস্টার’ প্রণয়নে সহায়ক হবে। এ পরিপ্রেক্ষিতে নাগরিককে বিষয়টি ভালভাবে বুঝিয়ে এবং প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদান করে নিবন্ধন করিয়ে নিতে হবে।

ম্যানুয়াল জন্ম নিবন্ধন,যেগুলি এখনও অনলাইনে করা হয়নি-এগুলির বিষয়ে করণীয় কী?

ম্যানুয়াল জন্ম নিবন্ধনসমূহ অনলাইনে অন্তর্ভুক্তির জন্য অনেকবার সময় দেওয়া হয়েছে। অনলাইন বহির্ভূত এই সকল জন্ম নিবন্ধন এখন হুবহু একই জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে অনলাইনে অন্তর্ভুক্তির সুযোগ নাই। যে এলাকায় হাতে লিখা জন্ম নিবন্ধনটি করা ছিল, সেই কার্যালয়ে রক্ষিত বইতে সনদের তথ্যটি পাওয়া গেলে নিবন্ধক সরাসরি হাতে লিখা সনদের তথ্য দিয়েই অনলাইন নিবন্ধন করে দিবেনযদি না ইতঃপূর্বে অন্য কোথাও জন্ম নিবন্ধন করা হয়ে থাকে।। তবে জন্ম নিবন্ধন নম্বরটি পরিবর্তিত হবে। এতে অবশ্য সংশ্লিষ্ট নাগরিকের কোন ক্ষতি বা অসুবিধা হবে না।

সর্বশেষ

ম্যানুয়ালি জন্ম নিবন্ধন আবেদন না করে আপনি অনলাইনেই করুন। অনলাইনে নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন ছাড়াও অনলাইনে সংশোধন করা যায়। সংশোধনের ক্ষেত্রে যদিও হার্ড কপি জমা দিতে হয়। তবুও এ পদ্ধতিটিই সবচেয়ে উত্তম। এতে ভুল ত্রুটি কম হয় এবং নিজের কাজ নিজেই সঠিকভাবে করা যায়।

আরও দেখুন- জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি কাগজপত্র লাগে । নাগরিকের টিকা কার্ডের বিকল্প কি?

www.technicalalamin.com

আপনি চাইলে আরও কিছু তথ্য দেখে নিতে পারেন

০১। জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন প্রশ্ন ও উত্তর ২০২২
০২। জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার ফি ২০২২
(Visited 252 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *