প্রাথমিক সরকারি বৃত্তি পরীক্ষা ২০২২ । প্রত্যেক বিদ্যালয়ের মোট শিক্ষার্থীর ১০% পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে

প্রাথমিক সরকারি বৃত্তি পরীক্ষা ২০২২ । প্রত্যেক বিদ্যালয়ের মোট শিক্ষার্থীর ১০% পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে

দেশের মেধাবী ও দরিদ্র শিক্ষার্থীদের সরকারি বৃত্তি প্রদানের লক্ষ্যে পরীক্ষা ব্যবস্থা করা হয়েছে এবং এটি মূলত প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের উদ্বুদ্ধ করতে, তাদের মেধার মূল্যায়নের জন্যই বৃত্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে- প্রাথমিক সরকারি বৃত্তি পরীক্ষা ২০২২

নতুন শিক্ষা কার্যক্রম বাস্তবায়ন হবে কিভাবে? আগামী বছর থেকে ধাপে ধাপে নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন শুরু হচ্ছে৷ প্রাথমিকের প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণি এবং মাধ্যমিকের ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণিতে এই শিক্ষাক্রম শুরু হবে৷ নতুন শিক্ষাক্রমে পঞ্চম শ্রেণির প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী এবং অষ্টম শ্রেণিতে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষার কোনোটিই নেই৷

প্রতিটি স্কুল হতে কত জন অংশ গ্রহণ করবে?- প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষা এক যুগ পর আবারও শুরু হচ্ছে৷ এ মাসের শেষ সপ্তাহে প্রতিটি উপজেলা সদরে পরীক্ষা হবে৷ এতে অংশ নিতে পারবে প্রতিটি স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির মোট শিক্ষার্থীর ১০ শতাংশ৷ পঞ্চম শ্রেণি পেরিয়ে মাধ্যমিকে পা রাখা শিক্ষার্থীদের মধ্যে কারা কারা সরকারি বৃত্তি পাবে, তা নির্ধারণে এক সময় আলাদাভাবে এই পরীক্ষা নেওয়া হত, যা বৃত্তি পরীক্ষা নামেই পরিচিত৷

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে গত ২৮ নভেম্বর ২০২২ তারিখ প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে মেধা বৃত্তি প্রদানের বিকল্প মেধা যাচাই পদ্ধতি বিষয়ক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় বর্তমানে প্রচলিত নিয়ম ও পদ্ধতিতে প্রাথমিক বৃত্তি প্রদান অব্যাহত থাকবে মর্মে সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়েছে। চলতি বৎসর ডিসেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে এই বৃত্তি পরীক্ষা গ্রহণ করতে হবে। উল্লেখ্য, প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষা প্রতিটি উপজেলা সদরে অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত বৃত্তি প্রদান কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের লক্ষ্যে ৫ম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থী ও কেন্দ্রের সংখ্যা জানা প্রয়োজন।

এমতাবস্থায়, বর্ণিত বিষয়ে তাঁর আওতাধীন সকল ধরণের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থী ও পরীক্ষা কেন্দ্রের তথ্য নিম্নোক্ত ছকে আগামী ০৬ ডিসেম্বর ২০২২ তারিখ ddestabdpe@gmail.com মেইলে প্রেরণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হয়েছে।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সরকারি বৃত্তি পরীক্ষা ২০২২ / অন্য শ্রেনীতে কি এটি অনুষ্ঠিত হবে না?

২০০৯ সালের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা (পিইসি) শুরু হওয়ার পর আলাদা বৃত্তি পরীক্ষা বন্ধ হয়ে যায়৷ প্রাথমিক সমাপনীর ফলের ভিত্তিতেই শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দেওয়া শুরু হয়৷ মহামারির কারণে গেল দুইবছর প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা হয়নি৷ পরে জানানো হয়, নতুন শিক্ষাক্রম চালু হচ্ছে বলে সমাপনী পরীক্ষা আর নেওয়া হবে না৷

প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষা ২০২২ । প্রত্যেক বিদ্যালয়ের মোট শিক্ষার্থীর ১০% পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে

Caption: Circulars about Education Scholarship 2022

সরকারি শিক্ষা বৃত্তি ২০২২ । প্রতি মাসে কত টাকা বৃত্তি পাওয়া যায়?

  1. সর্বশেষ প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত হয়৷ সে সময় ফলাফলের ভিত্তিতে ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে বৃত্তির জন্য নির্বাচিত ৮০ হাজারের বেশি শিক্ষার্থীর তালিকা প্রকাশ করা হয়৷
  2. একজন ছাত্র/ছাত্র ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি প্রাপ্ত হলে প্রতিমাসে ৩০০ টাকা বৃত্তি পেয়ে থাকেন।
  3. সাধারণ বৃত্তি প্রাপ্ত একজন শিক্ষার্থী প্রতি মাসে ২২৫ টাকা করে বৃত্তি পায়৷
  4. প্রাথমিক সমাপনীর বৃত্তিপ্রাপ্তরা অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত এই বৃত্তি পায় অর্থাৎ তিন বছর এ বৃত্তি পেয়ে থাকেন। প্রতি বছর ৩০০ টাকা হারে ৩৬০০ টাকা এবং  ৩ বছরে ১০,৮০০ টাকা বৃত্তি পায়।
  5. অন্য দিকে সাধারণ বৃত্তিতে ২২৫ টাকা হারে প্রতি বছরে ২৭০০ টাকা এবং ৩ বছরে ৮১০০ টাকা মোট বৃত্তি প্রাপ্তি হয়।

সবাই কি বৃত্তির জন্য বসতে পারবে?

না। দেশের প্রতিটি স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির মোট শিক্ষার্থীর ১০ শতাংশ প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে৷ আমাদের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা না হলেও কিন্তু আগামী ৮ ডিসেম্বর থেকে বার্ষিক মূল্যায়ন পরীক্ষা শুরু হবে৷ শ্রেণিকক্ষ ও বার্ষিক মূল্যায়ন পরীক্ষার ভিত্তিতে মেধা যাচাইয়ে এগিয়ে থাকা ১০ শতাংশ শিক্ষার্থী এই বৃত্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে৷

সরকারি বৃত্তি পরীক্ষার মানবন্টন ২০২২

(Visited 1,102 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *