ডাকঘর সঞ্চয়পত্র কেনার নিয়ম ২০২২, সঞ্চয়পত্র কোন কোন ব্যাংকে করা যায়, সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম ২০২২, সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম ২০২২, সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম ২০২২, পারিবারিক সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম, পরিবার সঞ্চয়পত্র ফরম ২০২২, তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র,

sanchayapatra new rules 2022 । সঞ্চয়পত্র সম্পর্কে আপডেট তথ্য জেনে নিন

Saving Certificate Purchase Ceiling – সেভিং সার্টিফিকেট মুনাফার হার ও লিমিট – অনলাইনে সঞ্চয়পত্র ক্রয় করার নিয়ম ২০২২

সঞ্চয়পত্র ক্রয় করার পদ্ধতি ২০২২– পরিবার সঞ্চয়পত্র ১০ হাজার টাকা হলেই ক্রয় করা যায় এবং ১ লক্ষ টাকা হলে তিন মাস অন্তর মুনাফা ভিত্তিক সঞ্চয়পত্র ক্রয় করা যায় – ২লক্ষ টাকা অধিক সঞ্চয়পত্র ক্রয় করার ক্ষেত্রে টিন সার্টিফিকেট লাগবে। ৫ লক্ষ টাকার বেশি সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের ক্ষেত্রে রিটার্ণ দাখিলের রশিদ বা প্রমানক দাখিল করতে হবে।

ব্যাংক হিসেব ছাড়া সঞ্চয়পত্র কেনা যায় না। ২০১৯ সাল হতে এই নিয়ম চালু হয়েছে। সঞ্চয়পত্রের মুনাফা এবং মেয়াদ শেষে বিনিয়োগের মূল টাকা সংশ্লিষ্ট ক্রেতার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে সরাসরি চলে যায়। পাঁচ বছর মেয়াদি এবং তিন মাস অন্তর মুনাফা-ভিত্তিক সঞ্চয়পত্র সব শ্রেণী ও পেশার নাগরিক ক্রয় করতে পারবেন। সঞ্চয়পত্র মুনাফার হার কমানো হয়েছে এবং ৫ লক্ষ টাকার অধিক সঞ্চয়পত্র ক্রয়ে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম ২০২২। সঞ্চয়পত্র প্রজ্ঞাপন

সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম অনুযায়ী পাঁচ বছর মেয়াদী বাংলাদেশ সঞ্চয়পত্র, তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র এবং পরিবার সঞ্চয়পত্র এই সব কয়টি মিলিয়ে কোনো ব্যক্তি একক নামে ৫০ লক্ষ টাকার বেশি সঞ্চয়পত্র ক্রয় করতে পারবে না। যৌথ নামে এই সীমা ১ কোটি টাকা। প্রতিটি সঞ্চয়পত্রের জন্য আলাদা আলাদা আবেদন ফরম রয়েছে। সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের যোগ্যতা ও মুনাফা সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে ঠিক করুন আপনি কোন সঞ্চয়পত্রটি কিনবেন। সঞ্চয়পত্র কিনতে আবেদন ফরম যথাযথ ভাবে পূরণ করে স্বাক্ষরসহ যেকোনো ইস্যু অফিসে দাখিল করুন। আবেদন ফরম যেকোনো ইস্যু অফিস থেকে বিনামূল্যে পাবেন। এছাড়াও অনলাইন থেকেও পিডিএফ (PDF) নামিয়ে নিয়ে প্রিন্ট করে নিতে পারবেন। সঞ্চয়পত্র নিয়ে আদি-অন্ত ২০২২

সঞ্চয়পত্র কেনার নিয়ম ২০২২ / বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন বা প্রতিবন্ধী সন্তানের জন্য সঞ্চয়পত্র ক্রয় ও প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে সঞ্চয়পত্র ক্রয় নীতিমালা ২০২২

সকল প্রতিষ্ঠানকেই সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করতে হলে সকল নিয়ম মেনে জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরের আওতাধীন ‘সঞ্চয় ব্যুরো’ তে আবেদন করতে হবে। Sanchayapatra Form 2022 । সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের আবেদন ফরম

সঞ্চয়পত্র কেনার আবেদন ফরম

শিরোনাম: সব কয়টি সঞ্চয়পত্রের আবেদন ফরম অনলাইনেই পাওয়া যায়। পিডিএফ ও ডকস আকারে ডাউনলোড করে চাইলে বাসায় বসেই পূরণ করতে পারবেন এসব ফরম। 

অপ্রাতিষ্ঠানিক ও ব্যক্তি পর্যায়ে সঞ্চয়পত্র কেনার নিয়ম ২০২২

  1. ক্রেতা ও নমিনি প্রত্যেকের দুই কপি করে পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি। সকলের ছবিই সত্যায়িত হতে হবে। তবে নমিনির ছবি ক্রেতা সত্যায়িত করবেন।
  2. ক্রেতা ও নমিনির ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি। নমিনি যদি নাবালক হন তাহলে জাতীয় পরিচয়পত্রের বদলে জন্ম নিবন্ধনের কপি। একই সাথে প্রত্যয়নকারীর জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি।
  3. সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগের পরিমাণ ১ লক্ষ টাকার বেশি হলে ক্রেতার ই-টিন (E TIN – Electronic Taxpayer’s Identification Number) সার্টিফিকেটের কপি।
  4. গ্রাহকের নিজ ব্যাংক হিসাবের MICR চেক ও MICR সাদা চেকের কপি। এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এই ব্যাংক হিসাবেই ইএফটি (EFT – Electronic Fund Transfer) সিস্টেমের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সঞ্চয়পত্রের মুনাফা এবং মেয়াদ শেষে আসল জমা হবে। উল্লেখ্য যে, একক নামে সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করতে চাইলে একক নামের ব্যাংক হিসাবের চেক দিতে হবে। যৌথ নামে বিনিয়োগ করতে চাইলে যৌথ নামের ব্যাংক হিসাবের চেকই দিতে হবে।
  5. পেনশনার সঞ্চয়পত্রের ক্ষেত্রে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের পূরণ করা প্রাপ্ত আনুতোষিক ও ভবিষ্য তহবিলের সনদপত্র দাখিল করতে হবে। এছাড়াও পিপিও (PPO – Pension Payment Order) কিংবা ইপিপিও (EPPO – Electronic Pension Payment Order) এর ফটোকপি অথবা নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের অনুমোদন করা পিএসপি-২ ফরম প্রয়োজন হবে।

বিশেষ চাহিদা সম্পন্নদের সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তির ক্ষেত্রে কি কি ডকুমেন্ট লাগে?

আমাদের সমাজে অনেক বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন মানুষই রয়েছেন যারা সাধারণ ভাবে অটিটিস্টিক নামে পরিচিত। এসব বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন মানুষদের শিক্ষা ও সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে অনেক দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠানই কাজ করে। শুধুমাত্র এই ধরনের প্রতিষ্ঠানই তিন মাস অন্তর মুনাফা ভিত্তিক সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করতে পারবে। এক্ষেত্রে যা যা লাগবে তা হল-সমাজসেবা জেলা কার্যালয় কর্তৃক প্রত্যয়নপত্র, পরিচালক পর্ষদের সভার কার্যবিবরণী, লেনদেন পরিচালনাকারীদের স্বাক্ষর সংক্রান্ত প্রত্যয়ন, প্রতিষ্ঠানটির ট্যাক্সপেয়ার’স আইডেন্টিফিকেশন নাম্বার ও ব্যাংক হিসাব বিবরণী এবং সেই ব্যাংক হিসাবের MICR চেক ও MICR চেকের সাদা কপি, উপরিউক্ত সকল প্রতিষ্ঠানকেই সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করতে হলে সকল নিয়ম মেনে জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরের আওতাধীন ‘সঞ্চয় ব্যুরো’ তে আবেদন করতে হবে।

সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম ২০২২

(Visited 7,078 times, 5 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *