আইডি কার্ডে স্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ২০২২

Permanent Address Changing in NID CARD – জাতীয় পরিচয়পত্রে স্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তন করা নিয়ম – স্থায়ী ঠিকানা সংশোধন

স্থায়ী ঠিকানা সংশোধন – ৫ মিনিটে স্থাীয় ঠিকানা পরিবর্তন, ঘরে বসে কাজ হবে, অফিসে না গিয়েই কাজ সেরে নিন, খুব সহজেই পরিবর্তন করুন এসকল শিরোনামে বিজ্ঞাপন বা থাম্বনেইল দেখে আকৃষ্ট হবেন না।  জাতীয় পরিচয়পত্রে স্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তন করতে হলে আপনাকে উপস্থিত হয়ে আবেদন করতে হবে এবং এটি সময়সাপেক্ষ ও জটিল প্রক্রিয়াও বলতে পারেন। আনুমানিক ১-৬ মাস পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

তাহলে কি জাতীয় পরিচয়পত্রের স্থায়ী ঠিকানা সংশোধন বা পরিবর্তন করা যায় না। অবশ্যই যায়। আংশিক সংশোধন খুব একটা জটিল প্রক্রিয়া না। অনলাইনে স্থায়ী ঠিকানার শুধুমাত্র বাসা/হোল্ডিং নং, পোস্ট অফিসের নাম ও পোস্ট কোড সংশোধন করতে পারবেন। কিন্তু জেলা, উপজেলা, গ্রামের নাম এগুলো অনলাইনে করতে পারবেন না। স্থায়ী ঠিকানা সম্পূর্ণ পরিবর্তনে আপনাকে বেশি কিছু প্রক্রিয়া ফলো করতে হবে। আসুন এগুলো ভাল করে জেনে নিই।

প্রথমত আপনি বর্তমান যে উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসের ভোটার সে নির্বাচন অফিসে আবেদন জমা দিতে হবে। অবশ্যই এনআইডিধারীকে উপস্থিত হয়েই আবেদন ম্যানুয়ালী জমা দিতে হবে। স্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তনের ক্ষেত্রে ২৩০/- টাকা ফি প্রযোজ্য, যা সোনালী সেবা, পে অর্ডার অথবা চালানের মাধ্যমে জমা দিতে হবে। (বিকাশ, রকেট পেমেন্ট এক্ষেত্রে হার্ড কপির আবেদনে গ্রহণযোগ্য হয়। তবে যদি নির্বাচন অফিসকে মানাতে পারেন সেটি ভাল কথা।

ম্যানুয়াল বা অফলাইনে ঠিকানা পরিবর্তন আবেদন করতে হয় / অনলাইনে আবেদনের স্ট্যাটাস জানা সম্ভব হবে না।

তবে যদি সংশোধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয় বা গ্রহণযোগ্য হয় মোবাইলে ম্যাসেজ পাবেন। শুধুমাত্র নিচের আবেদনটি আপনি করবেন, বাকি চিঠি দুটি উপজেলা নির্বাচন কমিশন অফিস এবং জেলা নির্বাচন কমিশন অফিস করবে।

স্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তনের আবেদন লিখবেন যেভাবে

Caption: Self Application>Upazilla Election office Forwarding>Zilla Election Office’s Forwarding>Director Gerneral Dhaka । অর্থাৎ আপনার আবেদন যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে মহাপরিচালক, জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগ,নির্বাচন কমিশন সচিবালয়, আগারগাঁও, ঢাকা বরাবর পৌছাতে হবে। আপনি সরাসরি আবেদনপত্রটি মহাপরিচালক, জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগ,নির্বাচন কমিশন সচিবালয়, আগারগাঁও, ঢাকা বরাবর পাঠিয়ে দিলে কোন কাজ হবে না বা গ্রহনযোগ্য হবে না।

জাতীয় পরিচয়পত্র স্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তন বা সংশোধনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি সংযুক্ত করতে হবে

  1. আবেদন ফরম ও অফিস কর্তৃক ২টি চিঠি। (নমুনা লিংক নিচে দেওয়া হলো)
  2. জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি।
  3. স্থায়ী বাসিন্দা মর্মে মেয়র/চেয়ারম্যান/কাউন্সিলর এর নিকট হতে প্রত্যয়নপত্র।
  4. ইউটিলিটি বিলের কপি। যেমন-বিদ্যু, পানি, গ্যাস বিল ইত্যাদির যে কোন ১টি।
  5. পৌর কর রশিদ/চৌকিদারী ট্যাক্স বা করের রশিদ/ অন্যান্য কর রশিদ।
  6. প্রযোজ্য ক্ষেত্রে আপনার বাবা-মা এর জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি, জন্ম সনদ, আপনাদের স্থায়ী ঠিকানার বাসার/বাড়ির দলিলের কপি ইত্যাদি নির্বাচন কমিশন অফিস যেটি চাইবে, সেটি সরবরাহ করতে হবে।

ভোটার আইডি কার্ডধারীর আবেদনে কি লিখতে হবে এবং নমুনা আছে কি?

বিদ্যামন তথ্য স্থায়ী ঠিকানা, বিভাগ, জেলা, উপজেলা/থানা, সিটি কর্পোরেশন, সিটি কর্পোরেশন ওয়ার্ড, পৌরসভা, পৌরসভা ওয়ার্ড, ইউনিয়ন পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদ ওয়ার্ড, মৌজা, গ্রাম/রাস্তা, বাসা/হোল্ডিং নম্বর, পোস্ট অফিস, পোস্ট কোড ইত্যাদি এবং চাহিত তথ্য (স্থায়ী)-যে তথ্যাটির মাধ্যমে আপনি পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন সেগুলো দিতে হবে। নিচের লিংক থেকে পিডিএফ এবং মাইক্রোসফট ওয়ার্ড ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন। প্রয়োজনে আপনি দুটি অফিসের ফরওয়াডিং রেডি করে নিয়ে যাবেন। নমুনাতে দেওয়া তথ্যগুলো কাল্পনিক তথ্য।

কিভাবে আবেদন করবে এবং চিঠির নমুনা চাই: ডাউনলোড PDF, Download Word File

(Visited 2,506 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published.

close