জিপিএফ সুদের হার

জিপিএফ কর্তনের হার । সর্বোচ্চ এবং সর্বনিম্ন সাবস্ক্রিপশন নির্ধারণ ২০২২

জিপিএফ কি? জেনারেল প্রভিডেন্ট ফান্ড। সরকারি কর্মচারী ছাড়াও বেসরকারি কর্মচারীদের ক্ষেত্রেও পিএফ থাকে। তবে সরকারি কর্মচারীদের জন্য যে পিএফ গঠন করা হয়েছে তাকে জিপিএফ বলে। অন্যান্য যে কোন পিএফ এর থেকে জিপিএফ এর মুনাফার হার বেশি। ক্রমপুঞ্জিভূত জমার কারণে চাকরি শেষে বৃহৎ অংশ প্রভিডেন্ট ফান্ড থেকে কর্মকর্তা/ কর্মচারীগণ পেয়ে থাকেন।

একজন কর্মকর্তা ৭০-৮০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জিপিএফ থেকে পেয়ে থাকেন। কর্মচারীগণ জিপিএফ অগ্রিম নেয়ার কারণে জিপিএফ এর সুবিধা খুব একটা ভোগ করতে পারেন না। এজন্য চাকরি শেষে একজন কর্মচারী ৩-১৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জিপিএফ থেকে পেয়ে থাকেন।

জিপিএফ এ হিসাব কখন খোলা যায়?

রাজস্বখাতভূক্ত একজন কর্মচারী চাকরি শুরুর পরই জিপিএফ এ হিসাব খুলে অর্থ জমাতে পারেন। কেউ যদি জমাতে না চান তবে তা ২ বছর পর্যন্ত বলবৎ থাকতে পারে। দুই বছর পর বাধ্যতামূলক ভাবে জিপিএফ এ সাবস্ক্রাইভ করতে হবে এবং মূল বেতনের সর্বনিম্ন ৫% হারে অবশ্যই কর্তন করতে হবে। জিপিএফ ফরম পূরণ করে হিসাবরক্ষণ অফিসের মাধ্যমে এ হিসাব খুলতে হয়। বর্তমানে ব্যাংক হিসাবের মত ডিজিটাল জিপিএফ নম্বর প্রদান করা হয়ে থাকে। GPF Account Opening Form | জিপিএফ ফরম সমূহ।

জিপিএফ বা সাধারণ ভবিষ্য তহবিল এ কর্তনের হার কত?

জিপিএফ এ আপনি সর্বনিম্ন ৫% এবং সর্বোচ্চ ২৫% অর্থ কর্তন করতে পারবেন। আপনার মূল বেতন যাই হোক না কেন আপনি মূল বেতনের সর্বোচ্চ ২৫% ইচ্ছাধীন থাকে কাটতে পারেন। তবে অনিচ্ছা সত্বেও সর্বনিম্ন ৫% কর্তন করতে পারেন। জিপিএফ মুনাফাকে যদি সুদ মনে করেন তবে আপনি মূল বেতনের ৫% কর্তন করতে পারেন এবং চাইলে আইবাস++ থেকে সুদ বা মুনাফা বিহীন ভাবে কর্তন করতে পারেন। আবেদনের ভিত্তিতে কর্তৃপক্ষ আপনার জমাকৃত অর্থের উপর সুদ বন্ধ করে দিতে পারবেন। এজন্য আইবাস++ এ গিয়ে Profit No করে দিতে হবে। জিপিএফ এ মুল বেতনের সর্বনিম্ন এবং সর্বোচ্চ কর্তনের পরিমান।

জিপিএফ এ মুনাফার হার কত?

জিপিএফ এমন একটি ফান্ড যা কর্মচারীদের আর্থিক নিরাপত্তার জন্য সৃষ্টি করা হয়েছে। আপনি জিপিএফ অর্থ জমাতে না চাইলেও সরকার তা বাধ্যতামূলক করেছে। আপনার জমা প্রারম্ভিক জের এর উপর ১৩% হারে এবং ক্রমপুঞ্জিভূত অর্থের উপর ১৩% হারে মুনাফা দেয়া হয়। ফলে আপনি খুব দ্রুত কম্পাউন্ট ইন্টারেস্টের মতো বেনিফিটেন হবেন। প্রতি বছরই সরকারি জিপিএফ মুনাফা নিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে পূর্বে এটি ১৬% পর্যন্ত মুনাফা বিদ্যমান ছিল। কোন সময় সরকারি ১২% পর্যন্ত নামিয়ে এনেছে। বর্তমানে স্লাবভিত্তিক ১৩% মুনাফা বিদ্যমান রয়েছে। ১৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জমা ধারীদের ক্ষেত্রে ১৩% মুনাফা নির্ধারণ করা হয়েছে ২০২১-২২ অর্থ বছর জুড়ে। ১১% এ নেমে আসলো জিপিএফ মুনাফার হার!

অনেক বেশি অর্থ যাদের জমা তারা কি স্ল্যাবভিত্তিক মুনাফা পাবে?

বর্তমানে ১৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ১৩%, ১৫ লক্ষ ১ টাকা হতে ৩০ লক্ষ পর্যন্ত ১২% হারে এবং ৩০ লক্ষ ১ টাকা হতে ১১% হারে মুনাফা নির্ধারণ করা হয়েছে। স্ল্যাব ভিত্তিক জিপিএফ মুনাফার নির্ণয় করার নিয়ম ২০২২। জিপিএফ এমন একটি বিনিয়োগ মাধ্যমে যেখানে আপনি মাত্র ৩-৭ হাজার টাকা চাকরি জীবনে কর্তন করে কোটিপতি হওয়ার সুযোগ রয়েছে। তাই আমি জিপিএফ হতে অগ্রিম উত্তোলন না করার পরামর্শ দিবো। যদি ব্যক্তিগত প্রয়োজনে লোন দরকার হয় আপনি ব্যাংক লোন নিবেন এবং তা পরিশোধ করে দিবেন ধীরে ধীরে। Future GPF Calculation । ভবিষ্যতে জিপিএফ দ্বারা কোটিপতি!

(Visited 4,589 times, 3 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *