মোবাইলে ব্লগ তৈরি, তথ্য বাতায়নে ব্লগ তৈরি করার নিয়ম, ব্লগ তৈরির টিউটোরিয়াল, ব্লগ তৈরি করে আয়, ফ্রি ব্লগ থেকে আয় ব্লগ লেখার নিয়ম, Blog তৈরি ব্লগার হওয়ার নিয়ম,

মোবাইলে ব্লগ তৈরি । ফ্রিতে ব্লগ তৈরির নিয়ম ২০২২

ফ্রিতে ব্লগ তৈরি করে আয় শুরু করতে পারেন। আপনি চাইলে ফ্রিতে এটি ব্লগার ব্লগ খুলে আজই কাজ শুরু করে দিতে পারেন।

এজন্য প্রথমে আপনাকে Blogger.com এ একটি ওয়েব ব্রাউজারের সাহায্যে ঢুকতে হবে। লাল ব্যাকগ্রাউন্ডে Create Your Blog নামে একটি লেখা দেখতে পাবেন, আপনি সেখানে ক্লিক করুন। ক্লিক করার সাথে সাথে আপনার জিমেইল একাউন্ট চাইবে। আপনি আপনার নিজের ব্যবহৃত জিমেইল একাউন্টটি সেখানে সরবরাহ করুন। জিমেইল এড্রেসটি দিয়ে Next বাটন চেপে পাসওয়ার্ড দিয়ে প্রবেশ করলেই আপনি নিচের মত ইন্টাফেস দেখতে পাবেন। আপনি মোবাইল দিয়েও ব্লগ তৈরি করে নিতে পারেন।

আপনি যে নামে ব্লগটি খুলতে চান সে নামটি টাইটেলে দিয়ে দিন। অর্থাৎ আপনার ব্লগের শিরোনামটি Title এ বসিয়ে দিন এবং Next বাটনে ক্লিক করুন। এখানে আপনি টাইটেল বাংলা অথবা ইংরেজীতে ব্যবহার করতে পারবেন। চাইলে আপনি বাংলিশও ব্যবহার করতে পারেন। ও হ্যাঁ আরও একটি কথা আপনি চাইলে আলাদা আলাদা শব্দ ব্যবহার করতে পারবেন অর্থাৎ স্পেস ব্যবহার করা যাবে।

Next বাটনে ক্লিক করলে আপনার সাব ডোমেইন নেইম চাইবে। আপনার ডোমেইন বা ওয়েব সাইটটি কি নামে হবে তা বসিয়ে দিবেন। অর্থাৎ আপনার মোবাইল নম্বররে কল করে যেমন আপনাকে পাওয়া যায় ঠিক এমনই একটি ইউনিক নাম ব্যবহার করবেন। যেমন ধরুন প্রথম আলো তার ডোমেইন বা ওয়েব সাইটের এড্রেস হিসাবে Prothomalo.com এখানে Prothomalo টি ওয়েব সাইটের নাম। আপনি যেহেতু ফ্রি ব্লক খুলছেন তাই গুগল তার .blogspot শব্দটি অতিরিক্ত ব্যবহার করবে তারপর .com ডোমেইন নেইমটি দিবে। অর্থাৎ আপনার ওয়েবসাইটের নাম যদি হয় choroipakhi তাহলে আপনি .com পাবেন আপনার ওয়েব সাইটের নাম হবে choroipakhi.blogspot.com কিন্তু ফ্রি হওয়ার কারণে .blogspot.com পাবেন। .blogspot সারাতে আপনাকে পেইড ডোমেইন ব্যবহার করতে হবে। আপনি choroipakhi লিখে Next বাটনে ক্লিক করবেন।

উপরের ওয়েব সাইটটির নাম একবার ব্যবহার করেছেন আপনি কনফার্ম করার জন্য আবার নামটি ব্যবহার করবেন। এখানেও চাইলেই আপনি বাংলায়ও নামটি ব্যবহার করবেন। যেমন ধরুন, “চড়ুই পাখি” আমি বাংলায় আলাদা শব্দ হিসাবে ব্যবহার করলাম।

Finish বাটনে ক্লিক করার সাথে সাথেই আপনার ব্লগ তৈরি হয়ে যাবে। আপনি চাইলে এখনই পোষ্ট লিখে ফেলতে পারেন। নোটিশ বোর্ডে অনেক তথ্য প্রদর্শন করবে আপনি সেগুলো ক্লোজ করে দিন। এগুলো গুগলের টার্মস এন্ড কন্ডিশন।

New Post ক্লিক করেই আপনি পোস্ট লিখা শুরু করে দিতে পারেন। এটি খুবই সহজপদ্ধতি পোস্ট পাবলিশ করার জন্য। আপনি ব্লগটি পোস্ট প্রকাশ করার জন্য সম্পূর্ণ রেডি। হ্যাঁ চাইলে আপনি আপনার ব্লগের জন্য একটি লোগো ব্যবহার করতে পারেন। একটি ফ্যাবিকন তৈরি করে যুক্ত করে নিতে পারেন। ব্লগের স্লোগান তৈরি করে লিখে দিতে পারেন। আপনি প্রতিটি পোস্টের ক্ষেত্রে থাম্ব নেইল ব্যবহার করতে পারেন। ব্লগকে আর সুন্দর করতে কাস্টম থিম ব্যবহার করতে পারেন।

যাহোক সবই আপনার রুচি। আপনি কিন্তু একটি ব্লগ তৈরি করে ফেলেছেন। এখন আপনি আপনার মনের মত করে পোস্ট লিখে পাবলিশ করা শুরু করে দিতে পারেন। তবে হ্যাঁ আর্নিংয়ের জন্য আপনাকে ৪০-১০০টি পোস্ট লিখতে হবে। জনপ্রিয় অথবা মানুষের উপকারে আসে এমন কিছু পোস্ট লিখতে হবে। মোট কথা প্রয়োজনে আসুক বা না আসুক আপনার ব্লগটিতে পর্যাপ্ত ভিজিটর আসলেই গুগল কেবল আপনাকে মানিটাইজেশন দিবে এবং আপনার ব্যাংক একাউন্টে ডলার জমা হতে থাকবে।

(Visited 32 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *