ভোটার নং ব্যবহার করে এনআইডি কার্ড ডাউনলোড

ভোটার নং দিয়ে NID Card বের করার নিয়ম ২০২২

ভোটার নম্বর ব্যবহার করে আইডি কার্ড বের করার নিয়ম ২০২২ – নির্বাচনী প্রার্থীদের কাছেই এলাকার ভোটার নম্বর থাকে – ভোটার নং দিয়ে এনআইডি

ভোটার নং – ভোটার নং বা ভোটার নম্বর পাওয়া কোন ব্যাপারই না – নির্বাচনের সময় এই ভোটার তালিকা নিয়ে সবাই চেয়ার টেবিল নিয়ে বসে থাকে সেখানে থেকে আপনার ভোটার নং সংগ্রহ করতে পারেন অথবা ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌর সভায় গিয়ে ভোটার তালিকা থেকে আপনি ভোটার নং বের করে আনতে পারেন।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে ভোটার নম্বর বা নং -ই বা খুজতে যাব কেন? ভোটার আইডি কার্ড হারিয়ে ফেলেছেন অথবা নতুন ভোটার হয়েছেন এমন, ভোটার স্লিপও হয়তো হারিয়ে ফেলেছেন কিন্তু প্রতি নির্বাচনে ভোট ঠিকই দিতে পারছেন সিরিয়াল নম্বর দিয়ে। সুতরাং চিন্তার কোন কারণ নেই এখন সিরিয়াল নম্বর যেখানে দেওয়া থাকে ঠিক সেখান থেকেই আপনি ভোটার নম্বর সংগ্রহ করতে পারবেন। এজন্য services.nidw.gov.bd/nid-pub/voter-info

ভোটার নম্বর

নির্বাচনী ভোটার তালিকা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কাছেও পাবেন। সেখানে উপরের তথ্য একটি বড় তথ্য বিবরণী থাকে। যেখানে ক্রমিক নং ঠিকানা, নাম, ভোটার নং, পিতা/মাতার নাম, পেশা ইত্যাদি উল্লেখ থাকে। ভোটার আপনি যখনই হউন না কেন, পুরাতন অথবা নতুন আপনি ভোটার নং ব্যবহার করেই অনলাইন হতে ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি সংগ্রহ করতে পারেন।

ভোটার নং বা নম্বর দিয়ে আইডি কার্ড বের করার পদ্ধতি ২০২২ / ভোটার আইডি নম্বর দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করে অনলাইন ভোটার আইডি কার্ড বা এনআইডি কার্ড হুবহু করে অনলাইন হতে সংগ্রহ করতে পারবেন।

নিচে দেখুন জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর/ ফর্ম নম্বর দিতে বলা হয়েছে কিন্তু আপনি এখানে ভোটার নং ব্যবহার করেও তথ্য পাবেন। তবে জন্ম তারিখ অবশ্যই জানতে হবে। আর ভোটার তালিকাতে জন্ম তারিখ এবং ভোটার নং সহ অন্যান্য তথ্য থাকে।

ভোটার নং দিয়ে এনআইডি ২০২২

Caption: How to get NID No or NID Copy from online by Voter No/ NID using Voter No from voter list

How to get NID Number or NID online Copy from Voter No of Voter list 2022

  1. প্রথমত আপনি ভোটার তালিকা সংগ্রহ করুন। সেখান থেকে ভোটার নং কালেক্ট করুন। ভোটার নং ও জন্ম তারিখ সামনে নিয়ে একটি স্মার্ট ফোন অথবা কম্পিউটার বা ল্যাপটপ ব্যবহার করুন। ভোটার নং মানেই কিন্তু এনআইডি নং বা স্লিপ নম্বর নয়।
  2. দ্বিতীয়ত services.nidw.gov.bd/nid-pub/voter-info লিংক ভিজিট করুন (মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে)
  3. তৃতীয়ত মোবাইল হলে থ্রি ড্যাশ থেকে ভোটার তথ্য মেন্যুতে ক্লিক করুন। কম্পিউটার হলে উপরে থেকে ভোটার তথ্য মেন্যুতে ক্লিক করুন।
  4. চতুর্থত ফর্মে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর/ফর্ম নম্বর যেখানে লেখা সেখানে ভোটার নং লিখুন (ইংরেজীতে)।
  5. পঞ্চমত জন্ম তারিখ বসান (ইংরেজীতে)।
  6. ষষ্ঠত ভোটার তথ্য মেন্যুতে ক্লিক করুন। ক্যাপচা এন্ট্রি সম্পন্ন করুন। দাগের মধ্যে লেখাগুলো খুব খেয়াল করে (ছবিতে প্রদর্শিত কোডটি প্রবেশ করার) ঘরে লিখুন ইংরেজীতে।
  7. সপ্তমত ভোটার তথ্য দেখুন এখানে ক্লিক করুন। 
  8. ব্যাস সমস্ত তথ্য দেখাবে। যেখানে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর এবং পিন নম্বর খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এখন আপনি এই জাতীয়পরিচয়পত্র নম্বর ব্যবহার করে আইডি কার্ড অনলাইন কপি সংগ্রহ করতে পারবেন।

এখন বলুন অনলাইন আইডি কার্ড কিভাবে পাব?

অনলাইন আইডি কার্ড পাওয়ার পদ্ধতি ২০২২ – পূর্বে যে কেউ ভোটার বা জাতীয়পরিচয়পত্র ধারীর উপস্থিতি ছাড়াই জাতীয়পরিচয়পত্র নম্বর এবং জন্ম তারিখ দিয়ে services.nidw.gov.bd/nid-pub/claim-account এই লিংকে গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করে আইডি কার্ড বের করতে পারতো কিন্ত বর্তমানে সিকিউরিটি রিজন বা নিরাপত্তা জনিত কারণে এনআইডিধারী বা ভোটারের উপস্থিতি ছাড়া রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করা যাবে না। তাই প্রথমে services.nidw.gov.bd/nid-pub/claim-account এই লিংকে ভিজিট করে নিচের ফর্ম পূরণ করুন।

ভোটার নং দিয়ে এনআইডি ২০২২

আপনার যদি জাতীয় পরিচয়পত্র থাকে এবং অনলাইন অ্যাকাউন্ট না করে থাকেন তাহলে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর অথবা ফর্ম নম্বর এবং জন্ম তারিখ দিয়ে রেজিস্টার করতে পারবেন। এরপরে আপনার অ্যাকাউন্টে লগইন করতে পারবেন।

এনআইডি রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়ার নির্দেশনাবলী ২০২২

এনআইডি নম্বর পাওয়ার জন্যই আমরা ভোটার নং ব্যবহার করলাম। এখন এনআইডি নম্বর দিয়ে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করলেই অনলাইন আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন। আপনি ভোটার হয়ে থাকলে রেজিস্ট্রেশন করে এই ওয়েবসাইটের সুবিধা নিতে পারেন। রেজিস্ট্রেশন করতে নিন্মের ধাপসমূহ অনুসরণ করতে হবেঃ

  • services.nidw.gov.bd/nid-pub/claim-account এই লিংকে দেওয়া ফর্মে প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী পূরণ করে নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করুন।
  • আপনার কার্ডের তথ্য ও মোবাইলে প্রাপ্ত এক্টিভেশন কোড প্রদান করুন।
  • আপনার মোবাইলে এনআইডি ওয়ালেট অ্যাপটি ডাউনলোড করুন এবং মুখমণ্ডল যাচাই (Face Verification) করে আপনার প্রোফাইলে লগইন করুন।

অনলাইন হতে ডাউনলোডকৃত আইডি কার্ড আপনি সকল ক্ষেত্রে প্রিন্ট করে ব্যবহার করতে পারবেন। যেহেতু জাতীয় পরিচয়পত্র এখন অনলাইনে যাচাই করা যায় তাই সরকার এনআইডি কার্ড ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে এটি আইনগত বেইআইনি বা অবৈধ নয়।

(Visited 35,133 times, 4 visits today)

12 comments

  1. ১মাসের মধ্যে এনআইডি কার্ড পাওয়া যায়?

    1. অনলাইনে আবেদন করুন। ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন। নির্বাচন কমিশন হতে পেতে একটু সময় লাগবে।

  2. ০৬১৪৫২৯৩৪৩২৭ এই নাম্বারের আইডি কার্ড দরকার

    1. ভিডিও দেখে নিজেই রেজিস্ট্রেশন করুন। রেজিস্ট্রেশন করতে আপনার ফেস ভেরিফিকেশন প্রয়োজন পড়বে।

      1. আমাদের কক্সবাজার জেলায় এই, ভোটার নম্বর দিয়ে এনআইডি নম্বর বের করা যাচ্ছে না যে, ভোটার তথ্য ছাড়া আর কোনো উপায় নাই ভাইয়া,

        1. আপনি ১০৫ কল করেও ভোটার স্লিপ দিয়ে ভোটার নম্বর জানতে পারেন। এটি কোন জেলায় আবদ্ধ নয়। সকল জেলা থেকে এক্সেজ করা যাবে।

  3. ভোটার তথ্য না থাকায় খুব সমস্যায় পড়েছি, ফেজ স্কীন ছাড়া ভোটার আইডি ডাউনলোড করার উপায় আছেকি?

    1. এটির অপব্যবহার হওয়ার কারণে নির্বাচন কমিশন ফেস স্কীন ভেরিফিকেশন বাধ্যতামূলক ও কঠোর করেছে। উপায় নাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *