অনলাইনে ভোটার আইডি সংশোধন

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ২০২২

বর্তমানে অনলাইনেই জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন করা যায়। যদি উপজেলা নির্বাচন কমিশনের স্বশরীরে গিয়েও আবেদন করতে পারেন। অনলাইন কাজ সেরে নেওয়াই ভাল কারণ এতে করে কোন অতিরিক্ত অর্থ গণতে হয় না। তাই আমি আপনাদের পরামর্শ দিব। শুধুমাত্র নির্ধারিত ফি প্রদানের মাধ্যমে অনলাইনেই আপনি জাতীয় পরিচয়পত্র বা এনআইডি কার্ড সংশোধনের আবেদন করে ফেলুন। 

ভোটার কার্ড সংশোধন অ্যাপস

এনআইডি ওয়ালেট বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের আওতায় নির্মিত একটি বহুমুখী অ্যাপ্লিকেশন। এই অ্যাপ্লিকেশনটির লক্ষ্য হ’ল এনআইডি সম্পর্কিত পরিষেবাগুলি আপনার ফোনে সহজেই পাওয়া যাবে। কিন্তু আপনার ফোনটি কিন্তু স্মাট ফোন হতে হবে। এতে আপনার ফেস বা চেহারা ভেরিফিকেশন করা হয়। অনলাইনে যদি আপনি রেজিস্ট্রেশন করতে যান তবে আপনাকে এই অ্যাপ এর সাহায্য নিতে নিবে। যদিও ইতোপূর্বে এই ব্যবস্থা ছিল না তাই কেউ উপস্থিত না থাকলেও অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করা যেত। এখন উক্ত ব্যক্তি উপস্থিত না হলে কোন ভাবেই অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন কাজ সম্পন্ন করা যাবে না। এখান থেকে অ্যাপসটি পেতে পারেন: ডাউনলোড। রেজিস্ট্রেশন করতে কোন ঝামেলায় পড়লে আপনি খুব সহজেই nidwallet-support@nidw.gov.bd এড্রেস এ মেইল করে সহযোগিতা পেতে পারেন।

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ফি জমা দেওয়ার নিয়ম

আবেদনকারীকে কত টাকা আবেদন বাবদ ফিস/চার্জ প্রদান করতে হবে তা জানার জন্য https://services.nidw.gov.bd ওয়েব সাইটে প্রবেশ করে ফিস/চার্জ অপশনে ক্লিক করে হিসাব করুন সিলেক্ট করে চাহিত তথ্য দিয়ে জেনে নিতে হবে। এনআইড’র বিপরীতে নির্ধারিত ফি রকেট দিয়ে জমা দিয়ে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করতে হবে। যেভাবে আপনি এনআইডি সংশোধনের জন্য অর্থ জমা দিবেন।

NID charge for edition

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন

অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন কাজটি সম্পন্ন করার আগেই কিন্তু আপনাকে ফি জমা দিতে হবে। আপনি কোন কাজের জন্য কত ফি গুনতে হবে তা কিন্তু আপনি অনলাইনেই গণনা করে দেখতে পারেন বা কিছু ফিচার সিলেক্ট করলে ওয়েবসাইটে দেখতে পারবেন।

এনআইডি নতুন বা সংশোধনের ফি কত?

০১ সেপ্টেম্বর ২০১৫ খ্রিস্টাব্দ/ ১৭ ভাদ্র ১৪২২ বঙ্গাব্দ তারিখ হতে জাতীয় পরিচয়পত্র নবায়ন, হারানাে বা নষ্ট হওয়ার কারণে নূতন জাতীয় পরিচয়পত্র ইস্য, সংশােধন ও তথ্য-উপাত্ত সংশােধনের জন্য নিম্নলিখিত হারে ফি ধার্য করা হয়েছে।

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ফি

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন করতে কতদিন সময় লাগে?

অনলাইনে যদি আপনি আবেদন করে এবং ডকুমেন্টগুলো যদি স্ক্যান করে সঠিকভাবে আপলোড করে দিতে পারেন তবে এটি ৭ দিনের মধ্যে সংশোধন হয়ে ম্যাসেজ পাবেন। ম্যাসেজ পাওয়ার পর আপনি অনলাইন থেকেই ডাউনলোড করে তা প্রিন্ট করে ব্যবহার করতে পারবেন। চাইলে আপনি রক্ষিণ প্রিন্টও করে নিতে পারেন। রঙ্গিন প্রিন্ট করার অনুমতি রয়েছে।

ঘরে বসেই জাতীয় পরিচয়পত্র রেজিস্ট্রেশন ও সংশোধন করুন।

(Visited 2,952 times, 1 visits today)

4 comments

    1. SPELLING MISTAKE ঠিক করা যাবে। এজন্য নির্ধারিত ফর্মে বা অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

  1. আমি আমার বাবার এনআইডি সংশোধন করেছি।অনলাইন থেকে নতুন কার্ড তুলেছি।আমি কি বাবার সংশোধিত স্মার্ট কার্ড আবার পাব?

    1. হ্যাঁ পাবেন। ডুপ্লিকেট ইস্যু করতে হবে ফি দিয়ে। এই মূহুর্তে পুন: স্মার্ট কার্ড বিতরণ বন্ধ আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *