জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ২০২২। স্থানীয় নির্বাচন কমিশন কেবলমাত্র আবেদনকারীদের শুনানীর ব্যবস্থা করা হয়

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ২০২২। স্থানীয় নির্বাচন কমিশন কেবলমাত্র আবেদনকারীদের শুনানীর ব্যবস্থা করেন

এনআইডি বা ভোটার আইডি কার্ড সংশোধনের আবেদনের প্রেক্ষিতে শুনানী হয় – শুনানীতে অযৌক্তিক ডকুমেন্ট পেশ করা যাবে না – জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ২০২২

জাতীয় পরিচয় পত্র আবেদন – জাতীয় পরিচয়পত্র বা ভোটার আইডি কার্ডের ভুল সংশোধনীর জন্য অনেকেই অনলাইন বা অফলাইনে ফর্মে আবেদন করে থাকেন। আবেদন সাপেক্ষে এসব আবেদন অনুমোদন হয় কিন্তু কিছু আবেদন নিষ্পত্তি হয় না, এসকল আবেদন মূলত উপযুক্ত ডকুমেন্টের অভাবেই নিষ্পত্তি হয় না। স্থানীয় নির্বাচন কমিশন এসব আবেদন যুক্তিসঙ্গত ডকুমেন্ট ও মন্তব্যের ভিত্তিতে এসব আবেদন নিষ্পত্তি করে থাকে।

প্রতিটি নির্বাচন অফিসে নির্দিষ্ট সময় পর পর আবেদন নিষ্পত্তির জন্য স্বশরীরে উপস্থিতির জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করে থাকে আপনার নিজ নির্বাচন কমিশনে খোজ নিন। আবেদন নিষ্পত্তির জন্য দিনব্যাপী এই কর্মসূচীতে নির্বাচন কমিশন নিজে উপস্থিত থেকে আবেদন নিষ্পত্তি করে থাকেন। জাতীয় পরিচয়পত্র সংশােধন সংক্রান্ত ‘গ’ ক্যাটাগরিভুক্ত আবেদনের শুনানী সপ্তাহের প্রতি মঙ্গলবার সকাল ০৯:০০ টা হতে বিকাল ০৩:০০ ঘটিকা পর্যন্ত আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা, খুলনা এর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে। কেবল ‘গ’ ক্যাটাগরিভুক্ত ইচ্ছুক আবেদনকারীগণ নিম্নোক্ত অনুসরণীয় বিষয়াবলী পালন সাপেক্ষে উক্ত শুনানীতে অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

কেউ যখন অনলাইনে বা সংস্লিষ্ট উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসে তার জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনের কোনো আবেদন করেন, প্রথমে সেই সংশোধন আবেদনটি ক্যাটাগরি হওয়ার জন্য ঢাকার নির্বাচন কমিশনের NID Wing এর হেড অফিসে একজন দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসারের কাছে ডিজিটালি চলে যায়। উক্ত অফিসার প্রতিটি সংশোধন আবেদনের ধরন অনুযায়ী প্রতিটি আবেদনের ক্যাটাগরি করেন এবং প্রতিটি সংশোধন আবেদন নিষ্পত্তির জন্য সংস্লিষ্ট অফিসারের কাছে ডিজিটালি প্রেরন করেন।

“ক” ক্যাটাগরির সংশোধন আবেদনের নিষ্পত্তি করেন সংস্লিষ্ট উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিসার, “খ” ক্যাটাগরির সংশোধন আবেদনের নিষ্পত্তি করেন সংস্লিষ্ট জেলা নির্বাচন অফিসার, “গ” ক্যাটাগরির সংশোধন আবেদনের নিষ্পত্তি করেন সংস্লিষ্ট আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসার এবং “ঘ” ক্যাটাগরির সংশোধন আবেদনের নিষ্পত্তি করেন নির্বাচন কমিশনের NID Wing এর মহাপরিচালক।

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ক্যাটাগরি দেখে নিন / ক্যাটাগরি ক, খ, গ ও ঘ অনুসারে নিষ্পত্তি করা হয়। শুনানীর জন্য সর্বোচ্চ সময়সীমা কত দিন?

আপনার এনআইডি কার্ড সংশোধন আবেদন কোন ক্যাটাগরির এখনই দেখে নিন: ডাউনলোড

জাতীয় পরিচয়পত্র বা এনআইডি সংশোধন করতে গেলে প্রামাণিক হিসেবে বেশ কিছু বাড়তি কাগজপত্র দিতে হয়। অযৌক্তিকভাবে এসব বাড়তি কাগজপত্র না চাইতে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন- ইসি। সেই সঙ্গে আবেদন নিষ্পত্তি করতে ৩০ দিনের সময়ও বেঁধে দিয়েছে কমিশন।

যেসকল ডকুমেন্ট নিয়ে এনআইডি সংশোধন শুনানীতে উপস্থিত থাকতে হয়

  1. আবেদনকারী স্বশরীরে শুনানীতে অংশগ্রহণ করবেন;
  2. শুনানীর দিন দুপুর ০২:০০ ঘটিকার মধ্যে নির্দিষ্ট রেজিস্টারে আবেদনকারীকে নাম অন্তর্ভুক্ত করতে হবে;
  3. আবেদনকারীর পক্ষে অন্য কেউ শুনানীতে অংশ নিতে পারবে না;
  4. জাতীয় পরিচয়পত্র (NID) গ্রহণের পরবর্তী সময়ে প্রস্তুতকৃত অযৌক্তিক প্রমাণাদি শুনানীতে উপস্থাপন করা থেকে বিরত থাকতে হবে;
  5. সংশােধনের স্বপক্ষে দাখিলকৃত দলিলাদিকাগজপত্রের মূলকপি শুনানীকালে সঙ্গে রাখতে হবে;
  6. উল্লেখ নাই এমন বিষয়ে প্রযােজ্য ক্ষেত্রে অফিস কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্ধারিত নিয়ম নীতি যথাযথভাবে প্রতিপালন করতে হবে।

শুনানীতে যদি নিষ্পত্তি না হয় তবে কোথায় আবেদন করবেন?

যুক্তিসঙ্গত ডকুমেন্ট থাকতে হবে – শুনানী পরবর্তী সিদ্ধান্ত যদি আপনি মন মতো না হয় এবং যদি পর্যাপ্ত ডকুমেন্ট আপনার থাকে আপনি প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর আবেদন করতে পারেন। প্রধান নির্বাচন কমিশন আপনাকে শুনানীর জন্য ডাকবে। আবেদন করার পর সেটি দ্রুত নিষ্পত্তি করতে প্রয়োজনে শুনানির ব্যবস্থা করা এবং যাচাই-বাছাই করে ১৫ কার্য দিবসের মধ্যে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিষ্পত্তি করবেন। সে জন্য মাঠ পর্যায়ে সপ্তাহে দুই দিন শুনানির ব্যবস্থা করতে হবে এবং তারপর ১০ কার্য দিবসের মধ্যে সেটি নিষ্পত্তি করতে হবে। ক্যাটাগরি বিভাজনের পর থেকে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা তার অধীনে আবেদন নিষ্পত্তি করতে ক্যাটাগরি ‘ক’ ৭ কার্য দিবস, ‘খ’ ১৫ কার্য দিবস ও ‘গ’ ক্যাটাগরির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৩০ দিনের সময় পাবেন।

(Visited 82 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *