Documents For NID Correction । ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে কি কি লাগে?

Documents For NID Correction । ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে কি কি লাগে?

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনের জন্য কি ডকুমেন্ট লাগে? – কি সংশোধন করতে চান সেটির উপর নির্ভর করে কি ডকুমেন্ট লাগবে – Documents For NID Correction 2022

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে কি কি লাগে? – যদি নাম সংশোধন করতে চান তবে ভোটার হওয়ার পূর্বের কোন বৈধ ডকুমেন্ট দেখাতে হবে। ভোটার হওয়ার পরের কোন সার্টিফিকেট বা প্রমানক প্রদর্শন করতে হবে না। তাছাড়া অবৈধ বা অন্যায় ভাবে ভোটার আইডি কার্ড বা জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন করে কোন নাগরিক যাতে সরকারি সুবিধা ও ইচ্ছামত ডকুমেন্ট তৈরি করতে না পারে সেইজন্যই ভোটার আইডি কার্ড সংশোধনের ক্ষেত্রে অধিকতর কঠোর হয়েছে সরকার। জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ২০২২ । NID Online NID correction

অনলাইনে ভোটার হওয়ার সুযোগ ২০২২- আপনি নাগরিক আপনার মনে প্রশ্ন আসতেই পারে যে, ভুল করেছে সরকার এখন মাসুল দিতে হচ্ছে আমাদের!! হ্যাঁ তা বলতেই পারেন তবে সরকার ভোটার তথ্য ফ্রি সংশোধনের জন্য ভোটার তালিকা হালনাগাদের জন্য ফ্রি বা বিনা ফিতে সংশোধন সুযোগ দেয়। যারা এই সুযোগ গ্রহণ করে না তাদের ক্ষেত্রেই ফি দিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন করতে হয়। তাছাড়া জাতীয় পরিচয়পত্র বা ভোটার হওয়ার ক্ষেত্রে সেল্ফ অনলাইন আবেদন করার সুযোগ দিয়েছে তাই নির্ভুল ভাবে প্রথমে অনলাইনে নিজে ফরম পূরণ করে প্রিন্ট করে জমা দিন তাতে ভুলের হার অনেকাংশেই কমে যাবে। জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ২০২২ । আগামী জানুয়ারি মাসে বিনা খরচে সংশোধন করা যাবে

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড বা জাতীয় পরিচয়পত্র কিভাবে সংশোধন বা nid songsodhon করবেন এবং বিভিন্ন ধরণের ভুলের জন্য কি কি প্রমানপত্র দেয়া লাগবে দেখিয়ে দিব। আমাদের প্রায় সবারই জাতীয় পরিচয়পত্রে বিভিন্ন ধরণের ভুল রয়েছে। কারো নামের ভুল, পিতা মাতার নামের ভুল, জন্মতারিখ, ঠিকানার ভুল ইত্যাদি। কিন্তু অনেকেই জানেন না, অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনের বিশেষ সুযোগ রয়েছে। জাতীয় পরিচয়পত্রের সামনের দিকে যে তথ্যসমূহ রয়েছে যেমন-

  • নাম
  • পিতার নাম
  • মাতার নাম ও
  • জন্মতারিখ

ইত্যাদি সংশোধন এই ক্যাটাগরির অন্তর্ভুক্ত। এ তথ্যগুলোর যে কোন একটি বা সবগুলো একসাথে পরিবর্তনের জন্য একই পরিমাণ ফি দিতে হবে। নাম সংশোধনের জন্য বেশি গ্রহণযোগ্য প্রমাণপত্র হচ্ছে এসএসসি, এইচএসসি বা সমমানের সনদ বা SSC and HSC Certificate যদি কারো এসএসসি সনদ না থাকে এক্ষেত্রে নিম্মোক্ত ডকুমেন্ট গুলোর যে কোন ১ টি বা ২ টি বা সবগুলো সাবমিট করতে পারেন। নাম সংশোধনের জন্য যে প্রমাণপত্রগুলো প্রয়োজনঃ (যেকোন ১টি) । জাতীয় সংশোধণ আবেদন ফরম ডাউনলোড করুন

  • এসএসসি বা এইচএসসি
  • সমমানের সনদ
  • অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ
  • পাসপোর্ট/ড্রাইভিং লাইসেন্স
  • এমপিওসিট/সার্ভিস বহি
  • বিবাহের কাবিন নামা

পিতা ও মাতার নাম সংশোধন ডকুমেন্ট – পিতা ও মাতার নাম সংশোধনের জন্য এসএসসি, এইচএসসি বা সমমানের সনদ (SSC and HSC Certificate) এবং একই সাথে পিতা-মাতার জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধনের কপি দাখিল করতে হয়। পিতা-মাতার নাম সংশোধনের জন্য যে প্রমাণপত্রগুলো প্রয়োজন-

  • এসএসসি বা এইচএসসি অথবা সমমানের সনদ, অথবা
  • অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ, অথবা
  • পাসপোর্ট/ড্রাইভিং লাইসেন্স

এবং নিম্মোক্ত যে কোন ১ টি

  • পিতা-মাতার জাতীয় পরিচয়পত্র
  • পিতা-মাতার জন্ম নিবন্ধন
  • চাকুরীজীবিদের ক্ষেত্রে অফিস প্রধানের প্রত্যয়ন
  • পিতার সকল সন্তানদের জন্মের ক্রম অনুযায়ী নাম ও জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর উল্লেখ পূর্বক ওয়ারিশন সনদ/প্রত্যয়নপত্র
  • ভাই-বোনের জাতীয় পরিচয়পত্র

NID Songshodon / National ID Card Correction Documents list 2022

যে তথ্য সংশোধন করতে চান সেই তথ্যটি প্রথমে সুনির্দিষ্ট করতে হবে এবং সে মোতাবেক ফি জমা দিতে হবে।

documents for nid correction

Caption: NID Correction

NID Correction Fees । জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ফি কত?

  1. প্রার্থীর পেশা, পাসপোর্ট ও মোবাইল নাম্বার, শিক্ষাগত যোগ্যতা ইত্যাদি। এগুলোর সংশোধন ফি ১১৫ টাকা। ভোটার আইডি কার্ডসংশোধন ফি বিকাশ, রকেট, ওকে ওয়ালেট ও টি ক্যাশ-এর মাধ্যমে ঘরে বসেই পরিশোধ করা যায়। নির্ধারিত ফি পরিশোধের ৩০ মিনিট পর থেকে তথ্য সম্পাদন শুরু করা যাবে।
  2. ১ম বার :ফি-২০০/-, ভ্যাট-৩০/-
  3. ২য় বার :ফি-৩০০/-, ভ্যাট-৪৫/-
  4. পরবর্তীতে :ফি-৫০০/-, ভ্যাট-৭৫/-

ভোটার আইডি কার্ডে জন্ম তারিখ সংশোধন করতে কি ডকুমেন্ট লাগে?

ভোটার আইডি কার্ড জন্ম তারিখ সংশোধনের জন্য সর্বাধিক গ্রহণযোগ্য প্রমাণপত্র হচ্ছে এসএসসি (SSC Certificate) । যদি কারো এসএসসি সনদ না থাকে এক্ষেত্রে নিম্মোক্ত ডকুমেন্ট গুলোর যে কোন ১ টি বা ২ টি বা সবগুলো সাবমিট করতে পারেন। জন্মতারিখ সংশোধনের জন্য যে প্রমাণপত্রগুলো প্রয়োজনঃ (যেকোন ১টি)

  • এসএসসি বা এইচএসসি অথবা সমমানের সনদ
  • পাসপোর্ট
  • অনলাইন জন্ম নিবন্ধন
  • ড্রাইভিং লাইসেন্স

জাতীয় পরিচয়পত্রের অন্যান্য তথ্য সংশোধন- জাতীয় পরিচয়পত্রের অন্যান্য তথ্যের মধ্যে রয়েছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা, পেশা, মোবাইল নম্বর, ধর্ম, ঠিকানা ইত্যাদি। ভোটার আইডি কার্ডের ঠিকানা পরিবর্তন- অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ডের ঠিকানা পরিবর্তন করা যায়না। এ জন্য আপনাকে একটি ঠিকানা পরিবর্তন ফরম পূরণ করে আপনার সংশ্লিষ্ট নির্বাচন অফিসে জমা দিতে হবে। NID Print Mistake Correction Form 1 pdf । জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ফরম ২০২২

Nidw । জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনের জন্য করণীয় ২০২২

(Visited 490 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *