জন্ম নিবন্ধন যাচাই ২০২২

e verify bdris । জন্ম নিবন্ধন যাচাই 19860915428117351

জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম ২০২২ – সরকারি বিভিন্ন ডকুমেন্ট পাওয়ার জন্য জন্ম নিবন্ধন যাচাইয়ের প্রয়োজন পড়ে – বার্থ সার্টিফিকেট যাচাই

জন্ম নিবন্ধন ভেরিফাই – মৃত্যু নিবন্ধন যাচাই করার ওয়েবসাইট –everify.bdris.gov.bd মৃত ব্যক্তির আর্থিক দাবী পরিশোধ করতে মৃত্যু সনদ যাচাইয়ের প্রয়োজন পড়ে। বর্তমানে খুব সহজেই অনলাইন মৃত্যু সনদ যাচাই করা যায় ফলে ভুল সনদ দাখিল কোন ভাবেই সম্ভব নয়।

Death Record মৃত্যু সনদ যাচাই করতে প্রথমে everify.bdris.gov.bd এই সাইটে যান অতপর আপনি ডান পার্শ্বে লাল রঙ্গের লেখা Click here to verify death record ক্লিক করে মৃত্যুসনদ নম্বর এবং মৃত্যুর তারিখ এন্ট্রি করুন। মৃত্যুর তারিখ এন্ট্রি করার সময় খেয়াল রাখতে হবে প্রথমে মৃত্যু সাল, মাস এবং দিন এন্ট্রি করুন। তারপর ক্যাপচা এন্ট্রি করুন যোগ হলে যোগফল এবং বিয়োগ হলে বিয়োগফল লিখুন। Search এ ক্লিক করলেই সমস্ত তথ্য দেখাবে।

জন্ম নিবন্ধনের ক্ষেত্রে ব্যক্তির নাম, জন্ম তারিখ, লিঙ্গ, জন্মস্থান, পিতা ও মাতার (এবং দত্তর সন্তানের ক্ষেত্রে যদি থাকে) কততম সন্তান, পিতা ও মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর (যদি থাকে) জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বরসহ (যদি থাকে) নাম এবং বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা জন্ম নিবন্ধনের উল্লেখ করতে হবে।

মৃত্যু নিবন্ধনের ক্ষেত্রে মৃত ব্যক্তির নাম, জন্ম নিবন্ধন নম্বর (যদি থাকে), জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর যদি থাকে, মৃত্যুর তারিখ, লিঙ্গ, বয়স, মৃত্যুর স্থান, মৃত্যুর কারণ, পিতা ও মাতা এবং স্বামী অথবা স্ত্রীর নাম (যদি থাকে) এবং বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা

কোন ব্যক্তি এতিম, প্রতিবন্ধী, তৃতীয় লিঙ্গের ব্যক্তি, পিতৃ বা মাতৃপরিচয়হীন, পরিচয়হীন রেদে, ভবঘুরে, পথবাসী বা ঠিকানাহীন বা যৌন কর্মী হওয়ায় নিবন্ধক তথ্যের ঘাটতির কারণে উক্ত ব্যক্তির জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন প্রত্যাখ্যান করিতে পারিবেন না এবং এইরূপ ক্ষেত্রে যে সকল তথ্য অসম্পূর্ণ থাকিবে সে সকল স্থানে “অপ্রাপ্য” শব্দ লিখিয়া জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন করিতে হইবে।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই ২০২২

Caption: Death or birth certificate can be verify by online । Now Validation is required to register birth and Death.

অপ্রকাশিত তথ্য প্রকাশ পেলে এবং জন্মের পরই শিশুর মৃত্যু হইলে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ২০২২

  1. জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন বিধিমালা ২০১৮ এর উপবিধি (২) অনুসারে নিবন্ধিত ব্যক্তির অপ্রকাশিত তথ্য (যথা:- পিতা ও মাতা, স্বামী বা স্ত্রী নাম, বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা ইত্যাদি) জ্ঞাত হইবার সঙ্গে সঙ্গে জন্ম নিবন্ধনের ক্ষেত্রে নিবন্ধিত ব্যক্তি স্বয়ং
  2. অথবা নিবন্ধিত ব্যক্তির পিতা ও মাতা এবং মৃত্যু নিবন্ধনের ক্ষেত্রে নিবন্ধিত ব্যক্তির পিতা ও মাতা, স্বামী -স্ত্রী, পুত্র -কন্যা বা আইনানুগ উত্তরাধিকারীগণের মামলার পরিপ্রেক্ষিতে উপযুক্ত আদালতের নির্দেশে নিবন্ধক জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন সনদ সংশোধন করিবেন।
  3. জন্ম নিবন্ধনের পূর্বে কোন ব্যক্তি বা জন্ম গ্রহণের পরপরই কোন শিশু মৃত্যুবরণ করিলে সেই সকল ক্ষেত্রে নিবন্ধক প্রথমে জন্ম
  4. এবং অত:পর মৃত্যু নিবন্ধন করিবেন এবং মৃত ব্যক্তির পরিচয় অজ্ঞাত হইলে সেই ক্ষেত্রে শুধু মৃত্যু নিবন্ধন করিবেন।

মৃত ব্যক্তি অজ্ঞাত হলে মৃত্যু নিবন্ধন কিভাবে হবে?

আবেদনকারীর আবেদনপত্রের মাধ্যমে প্রাপ্ত ব্যক্তির নাম, জন্ম বা মৃত্যুর তারিখ, লিঙ্গ, জন্ম বা মৃত্যুস্থান, মৃত্যুর কারণ ছাড়া প্রদত্ত অন্যান্য তথ্য অসম্পূর্ণ থাকিলে আবেদনকারী যেইরূপ বর্ণনা করিবেন, নিবন্ধক সেইরূপেই উহা লিপিবদ্ধ করিবেন এবং মৃত ব্যক্তি অজ্ঞাত হইলে পুলিশ কর্তৃক দাখিলকৃত সুরতহাল প্রতিবেদনের ভিত্তিতে নিবন্ধক মন্তব্যের কলামে মৃত ব্যক্তির শারীরিক আকৃতি, প্রকৃত বা বিশেষ চিহ্ন লিপিবদ্ধ করিয়া নামের স্থানে অজ্ঞান পরিচয় লিখিবেন।

(Visited 2,181 times, 1 visits today)

2 comments

  1. Hello there! This post couldn’t be written any better!
    Reading this post reminds me of my previous room
    mate! He always kept talking about this. I will forward this write-up to him.
    Pretty sure he will have a good read. Thanks for sharing!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *