জিপিএফ দিয়েই কোটিপতি

জিপিএফ এ টাকা জমিয়ে কোটিপতি হওয়ার টিপস ২০২২

সরকারি কর্মচারীগণ যাতে আর্থিকভাবে দেওলিয়া না হয় সেজন্য আর্থিক নিরাপত্তার অংশ হিসেবে সরকার জিপিএফ চাঁদা বাধ্যতামূলক করেছে। সরকারি কর্মচারীদের এ স্বল্প বেতনে চলে সেভিংস রাখাটা খুবই দূরহ ব্যাপার। যাহাই বেতন পান না কেন জীবন যাত্রার ব্যয় নির্বাহের পর কোন সঞ্চয় থাকে না। যদি জিপিএফ জমা না থাকত তবে নিজের সম্বল বা অনাকাঙ্খিত চাহিদা মেটানোর উপায় থাকতো না।

হ্যাঁ এ কথা কিন্তু দ্রুব সত্যি যে আপনি কোথা থেকে সাহায্য না পেলেও জিপিএফ আপনার পাশে আছে। জিপিএফ অগ্রিম গ্রহনের মাধ্যমে আপনি আপনার সাময়িক আর্থিক সমস্যার সমাধান করতে পারেন। যদিও ৫২ বছর পূর্ননা হওয়া পর্যন্ত আপনি অফেরৎযোগ্য বা জিপিএফ চূড়ান্ত উত্তোলন করতে পারবেন না।

জিপিএফ থেকে টাকা উত্তোলন বা ফেরৎযোগ্য অগ্রিম গ্রহণ করলে ১২-৪৮ কিস্তিতে আপনাকে পরিশোধ বা ফেরত দিতে হবে ৫২ বছর বয়স পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত। এবার আসি মূল কথাই এই উপকারী জিপিএফকে যদি আপনি লালন করতে পারেন তবে আপনি ৫২ বছর পূর্তিতে কোটি টাকা এই জিপিএফ থেকেই পেতে পারেন। আপনার এই উপকারী বৃক্ষটির ডাল পালা যদি না কাটেন তবে চক্রবৃদ্ধি হারে এত মুনাফা পাবেন যা আপনি ভাবতেও পারবেন না।

ধরি কোন কর্মকর্তার বর্তমানে ৭৫ লক্ষ টাকা জিপিএফ জমা হয়েছে। হ্যাঁ এমন অনেক কর্মকর্তা পাবেন যাদের ৭০-৮০ লক্ষ টাকা জিপিএফ এ জমা হয়েছে। যাহোক এভারেজ এ 12% মুনাফা ধরলে বার্ষিক ৯ লক্ষ টাকা মুনাফাই পাবেন। ৭৫ হাজার টাকা মাসে মুনাফা পাচ্ছে যা তিনি হয়তো বেতনও পান না। এখন প্রশ্ন আনতে পারে ১২% মুনাফা ধরলেন কেন? আপনারা অবগত আছেন চলতি বছর ১৩% মুনাফা ধার্য্য করা থাকলেও এ বছর স্ল্যাবভিত্তিতে মুনাফার হার কমানো হয়েছে। ১৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ১৩% অর্থাৎ মুনাফা ঠিক থাকলেও ১৫ লক্ষ থেকে ৩০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ১২% মুনাফা এবং ৩০ লক্ষ তদুর্ধ্ব জিপিএফ জমার ক্ষেত্রে ১১% মুনাফা পুন: নির্ধারন করা হয়েছে।

আসুন জিপিএফ চাঁদা জমা ও জিপিএফ মুনাফা নিয়ে একটি হিসাব কষি তাহলেই বিষয়টি পরিস্কার হয়ে যাবে।

বর্তমানে আকিব সাহেব ৩ হাজার করে জমা করে 1,02,000 টাকার মালিক, তিনি ৩ হাজার করে আরও ৫ বছর জমা করলে তার সুদাসল দাড়াবে 437,645.62, তারপর তিনি ১ হাজার টাকা বৃদ্ধি করে ৪ হাজার টাকা কর্তন করলে ৫ বছর পর অর্থাৎ মোট চাকরির ১৩ বছরে দাড়াবে 1,139,289.98 টাকা অতপর তিনি আরও ১ হাজার টাকা জিপিএফ জমা বৃদ্ধি ৫০০০ টাকা করে ৫ বছর পর অর্থাৎ ১৮ বছর পর তার জমা দাঁড়াবে 2,515,263.32 টাকা। তারও পর তিনি ১ হাজার টাকা বৃদ্ধি করে ৬০০০ টাকা করে ৫ বছর কর্তন করলে ২৩ বছর পর তার জিপিএফ জমার সুদাসল দাড়াবে 5,133,644.09 টাকা। এরপর তিনি আরও ১ হাজার টাকা বৃদ্ধি করে ৭০০০ টাকা করে ৫ বছর কর্তন করে ২৮ বছর চাকরি শেষে তিনি 10,041,080.00 টাকার মালিক অর্থাৎ কোটিপতি হয়ে যাবেন।

আরও জানতে ভিজিট করুন: Future GPF Calculation । ভবিষ্যতে জিপিএফ দ্বারা কোটিপতি!

বি:দ্র: যদিও জিপিএফ এ মুনাফা কমেছে তবু এটি এখনও খুবই লাভজনক। ১৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পূর্বের হারই বহাল রয়েছে। ভবিষ্যত অনিশ্চিত তাই মুনাফার হার তারতম্য হবে কিন্তু একটি ভিশন নিয়ে আগালে ভাল সঞ্চয় করা যায়।

(Visited 3,570 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *