জন্ম নিবন্ধন ফি ২০২২ । জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি অনলাইনে প্রদানের নিয়ম

জন্ম নিবন্ধন ফি বাংলাদেশ সরকারের গেজেটে প্রকাশিত হার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত – জন্ম নিবন্ধন সংশোধণ ফি চাইলেই বেশি নেয়া যাবে না – জন্ম নিবন্ধন ফি ২০২২

Birth Registration Fee 2022 –জন্ম নিবন্ধন মূলত সন্তান জন্মের ৪৫ দিনের মধ্যেই সম্পন্ন করে ফেলা উত্তম। অনেকেই বয়স কমানোর ধান্দায় থাকেন এটি করা কোন ভাবেই ঠিক নয়, জন্মটাই যদি ভুল বা অসত্য দিয়ে শুরু হয়, তবে জন্মই যেন মিথ্যা দিয়ে শুরু হল। চাকরি বা রিজিক আল্লাহ তা’য়ার হাতে কথাটি বিশ্বাস করলে কোন ভাবেই এটি ভাবা ঠিক হতে পারে না যে, জন্ম কয়েক বছর পরে দেখালে চাকরি পাওয়া সুযোগ বেড়ে যাবে। সোনালী সেবার মাধ্যমে আপনি অনলাইনে ফি পরিশোধ করতে পারবেন সেটি আবেদন করার সময়ই কিন্তু ভাল হয়, আবেদনপত্র জমা দেয়ার সময়ই ফি পরিশোধ করা কারণ যেহেতু হার্ড কপি জমা দিতেই হয়।

জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনের ফি বাবদ প্রাপ্ত অর্থ চালানের মাধ্যমে জমা সংক্রান্ত তথ্য BDRIS-এ প্রবেশ করাতে গেলে অনেক সময় ফাইল আপলোড করা যায় না বা নানা রকম সমস্যা দেখা দেয়। জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন বিধিমালা ২০১৮-এর বিধি ২১ (৬) অনুযায়ী প্রতি মাসে আদায়কৃত অর্থ পরবর্তী মাসের ৭ তারিখের মধ্যে সরকারি তহবিলে জমা প্রদান বাধ্যতামূলক। জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার ফি ২০২২

জন্ম তারিখ ব্যতীত যদি অন্য কোন তথ্য যেমন নিজের নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, ঠিকানা ইত্যাদি অন্যান্য তথ্য সংশোধনের প্রয়োজন পড়ে তবে আপনাকে ফি হিসাবে গুণতে হবে ৫০ টাকা দেশে এবং বিদেশে ১ মার্কিন ডলার। আমি আপনাদের পরামর্শ দিব আপনি নিজেই জন্ম নিবন্ধন আবেদন করুন ফলে ভুলভ্রান্তি কম হওয়ার সুযোগ থাকে। জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি ২০২২

জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন বিধিমালা ২০১৭ এর বিধি ২৩ এর উপ-বিধি (৭) এর ক্ষমতাবলে সরকার জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ফিস পুন: নির্ধারণ করেছে।

জন্ম নিবন্ধন মূলত সন্তান জন্মের ৪৫ দিনের মধ্যেই সম্পন্ন করে ফেলা উত্তম। অনেকেই বয়স কমানোর ধান্দায় থাকেন এটি করা কোন ভাবেই ঠিক নয়, জন্মটাই যদি ভুল বা অসত্য দিয়ে শুরু হয়, তবে জন্মই যেন মিথ্যা দিয়ে শুরু হল। চাকরি বা রিজিক আল্লাহ তা’য়ার হাতে কথাটি বিশ্বাস করলে কোন ভাবেই এটি ভাবা ঠিক হতে পারে না যে, জন্ম কয়েক বছর পরে দেখালে চাকরি পাওয়া সুযোগ বেড়ে যাবে।

জন্ম নিবন্ধন ফি ২০২২ । জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি অনলাইনে প্রদানের নিয়ম

জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন বিধিমালা ২০১৭ এর বিধি ২৩ এর উপ-বিধি (৭) এর ক্ষমতাবলে সরকার জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ফিস নিম্নোক্তভাবে পুন:নির্ধারণ করা হয়েছে

সরকার জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ফিস নিম্নোক্তভাবে পুন:নির্ধারণ করেছে

  • জন্ম বা মৃত্যুর ৪৫ (পঁয়তাল্লিশ) দিন পর্যন্ত কোন ব্যক্তির জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন বিনা ফিসে নিবন্ধন করা যাবে।
  • জন্ম বা মৃত্যুর ৪৫ (পঁয়তাল্লিশ) দিন পর হইতে ৫ (পাঁচ) বৎসর পর্যন্ত কোন ব্যক্তির জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন (সাকুল্যে) ২৫ টাকা দেশে নিবন্ধন করা যাবে।
  • জন্ম বা মৃত্যুর ৫ (পাঁচ) বৎসর পর কোন ব্যক্তি জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন (সাকুল্যে) ৫০ টাকা দেশে নিবন্ধন করা যাবে।
  • জন্ম তারিখ সংশোধনের জন্য আবেদন ফি ১০০  টাকা।
  • জন্ম তারিখ ব্যতিত নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, ঠিকানা ইত্যাদি অন্যান্য তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন ফি ৫০ টাকা বাংলাদেশে জন্ম হলে।
  • বাংলা ও ইংরেজী উভয় ভাষায় মূল সনদ বা তথ্য সংশোধনের পর সনদের কপি সরবরাহ পাওয়া যাবে বিনা ফিসে।
  • বাংলা ও ইংরেজী উভয় ভাষায় নকল সরবরাহ পাওয়া যাবে ৫০ টাকা ফি জমা করে।

সকল ইউপি ও পৌর সভায় কি একই হার প্রযোজ্য?

জি অবশ্যই – কিছু অসাধু ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান জন্ম নিবন্ধন বাবদ ২০০-১০০০ টাকা পর্যন্ত নাগরিকদের নিকট হতে আদায় করছে বলে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। তবে এসব অনিয়ম দেখলে অবশ্যই ৯৯৯ এ কল করে অভিযোগ দাখিল করা আপনার নাগরিক দায়িত্ব। ও হ্যাঁ আপনি অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন ও সংশোধনের আবেদন দাখিল করে অনলাইনেই ফি পরিশোধ করে শুধুমাত্র প্রিন্ট কপি নিবন্ধকের অফিসে বা ইউপিতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহ জমা দিন। ৩-৫ দিনের মধ্যে আবেদন অনুমোদন হয়ে যাবে কোন প্রকার অতিরিক্ত ফি পরিশোধ ছাড়াই।

New Rules to apply for birth certificate online– আপনি নিজে মোবাইল বা পার্সোনাল কম্পিউটার ব্যবহার করে খুব সহজেই নিজের সন্তানের জন্ম নিবন্ধন করে ফেলতে পারেন। জন্ম নিবন্ধন সহজীকরণের জন্য পিতা মাতার জন্ম নিবন্ধন ও জাতীয় পরিচয়পত্র তথ্য প্রদানের বিষয়টি শিথিল করা হয়েছে। Online NID correction Step by step । জন্ম নিবন্ধন সনদ সংশোধন নিয়ম ২০২২

জন্ম নিবন্ধনের ক্ষেত্রে টিকা কার্ড ব্যবহার করুন এবং পিতা/ মাতার এনআইডি কার্ডের ছবি ঠিকানা ভেরিফিকেশনের জন্য ব্যবহার করাই ভাল। তবে আপনি বাড়ি বা জমির খাজনার রশিদও ব্যবহার করতে পারবেন ঠিকানা ভেরিফিকেশনের জন্য। তাই দেরী না করে এখনই জন্ম নিবন্ধন করে ফেলুন। নতুন জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করতে যা যা লাগবে।

জন্ম নিবন্ধন মূলত সন্তান জন্মের ৪৫ দিনের মধ্যেই সম্পন্ন করে ফেলা উত্তম। অনেকেই বয়স কমানোর ধান্দায় থাকেন এটি করা কোন ভাবেই ঠিক নয়, জন্মটাই যদি ভুল বা অসত্য দিয়ে শুরু হয়, তবে জন্মই যেন মিথ্যা দিয়ে শুরু হল। চাকরি বা রিজিক আল্লাহ তা’য়ার হাতে কথাটি বিশ্বাস করলে কোন ভাবেই এটি ভাবা ঠিক হতে পারে না যে, জন্ম কয়েক বছর পরে দেখালে চাকরি পাওয়া সুযোগ বেড়ে যাবে। জন্ম নিবন্ধন ফি কত টাকা ২০২২

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি ২০২২

(Visited 3,500 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *