দূর্ঘটনা এড়াতে সতর্কতা

motorcycle Riding safeness 2022 । মােটরসাইকেল দুর্ঘটনা রােধে সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি

হাই ওয়েতে মোটর সাইকেল এক্সিডেন্ট বেড়ে যাচ্ছে – বাইক চালানার সময় যে সতর্কতা নিবেন – motorcycle Riding safeness 2022

মােটরসাইকেল দুর্ঘটনা রােধে বিআরটিএ’র সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি –সম্প্রতি লক্ষ্য করা গেছে যে, দেশের সড়ক-মহাসড়কে মােটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণহানির সংখ্যা আশংকাজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। গঠনগতভাবে মােটরসাইকেল অপেক্ষাকৃত একটি অনিরাপদ বাহন। মােটরসাইকেল সাধারণত যুবক বা উঠতি বয়সীরা বেশি ব্যবহার করে থাকে, যাদের মধ্যে দ্রুতগতিতে গাড়ি চালানাের প্রবণতা খুব বেশি। পরিসংখ্যান থেকে দেখা যায়, দেশে এ যাবৎ মােটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন সংখ্যা প্রায় ৩৬ লক্ষ ৫০ হাজার।

পক্ষান্তরে মােটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদানের সংখ্যা প্রায় ২৩ লক্ষ ৫০ হাজার অর্থাৎ বহুসংখ্যক অদক্ষ মােটরসাইকেল চালক ড্রাইভিং লাইসেন্স ব্যতীত মােটরসাইকেল চালনা করছে। জরুরি প্রয়ােজনে স্বল্প দূরত্বে গমনের জন্য মােটরসাইকেল ব্যবহারের উদ্দেশ্য থাকলেও বর্তমানে এসব যান মহাসড়ক ও দূরপাল্লায় চলাচল করতে দেখা যাচ্ছে, যা অত্যন্ত বিপজ্জনক।

মােটরসাইকেল চালনাকালে অনেক ক্ষেত্রে হেলমেটসহ নিরাপত্তা সরঞ্জামাদি ব্যবহার করা হচ্ছে না, ফলে দুর্ঘটনায় প্রাণহানির সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। অতিরিক্ত গতি, ওভারটেকিং, নিয়ম জানা বা না মানা ইত্যাদিও মােটরসাইকেল দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ।

লাইসেন্স বিহীন বাইক চালাবেন না / যথা সম্ভব হাইওয়ে এড়িয়ে চলুন।

নির্ধারিত গতি বজিয়ে রেখে বাইক চালনা করুন এবং বাইক নিয়ন্ত্রণে রাখার মত গতি তুলুন। কোন ক্রমেই নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতার বাইরে গতি তুলবেন না।

motorcycle Riding safeness 2022

motorcycle Riding safeness 2022 । মােটরসাইকেল দুর্ঘটনা রােধে সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি

সার্বিক বিবেচনায় মােটরসাইকেল দুর্ঘটনা রােধে বিআরটিএ’র আহ্বান।

  1. অভিভাবকগণ সন্তানদেরকে মােটরসাইকেল ব্যবহার করতে নিরুৎসাহিত করুন।
  2. শুধুমাত্র জরুরি প্রয়ােজনে স্বল্প দূরত্বে মােটরসাইকেল ব্যবহার করুন। দূরপাল্লা বা মহাসড়কে মােটরসাইকেল ব্যবহার করবেন না।
  3. মােটরসাইকেল চালনাকালে একজনের বেশি আরােহী বহন করবেন না।
  4. মােটরসাইকেল চালনাকালে ওভারটেকিং করবেন না। মােটরসাইকেলে সর্বদা স্বল্প গতি বজায় রাখুন অর্থাৎ দ্রুত গতিতে বা বেপরােয়াভাবে মােটরসাইকেল চালাবেন না।
  5. অধিকাংশ ক্ষেত্রে মােড় বা বাঁক ঘােরার সময় মােটরসাইকেল কাত হয়ে পড়ে যায়। এ কারণে যে কোনাে মােড়/বাক ঘােরার আগে বা রাস্তার বাঁক অতিক্রম করার সময় নিয়ন্ত্রণ উপযােগী অত্যন্ত স্বল্প গতিতে মােটরসাইকেল চালাবেন।
  6. মােটরসাইকেল চালনাকালে মােবাইল ফোন বা ইয়ারফোন ব্যবহার করবেন না। ট্রাফিক আইন, ট্রাফিক সাইন মেনে চলুন। চালক ও আরােহী উভয়েই সঠিকভাবে মানসম্মত হেলমেট ও অন্যান্য নিরাপত্তা সরঞ্জামাদি (Chest guard, Knee Guard, Elbow guard, গােড়ালি ঢাকা জুতা বা কেডস সম্পূর্ণ আঙ্গুল ঢাকা গ্লাভস এবং ফুলপ্যান্ট, ফুল শার্ট) ব্যবহার করুন।।
  7. হালনাগাদ বৈধ কাগজপত্র (ড্রাইভিং লাইসেন্স, রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট, ট্যাক্স-টোকেন ইত্যাদি) এবং রেট্রো-রিফ্লেক্টিভ নাম্বারপ্লেট ব্যতীত মােটরসাইকেল চালাবেন না।।

বেপরোয়া গতিতে বাইক চালনা করতে দেখলে কোথায় অভিযোগ করবেন?

বেপরোয়া গতিতে বাইক চালানো –যদি আপনার দৃষ্টি গোচর হয় যে কোন যুবক বা ব্যক্তি বেপরোয়া গতিতে বাইক চালাচ্ছেন এবং ট্রাফিক নিয়ম ব্রেক করছেন তবে আপনি অবশ্যই ৯৯৯ এ কল করে বিষয়টি অবহিত করুন। একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে যে কোন অনিয়ম দেখলেই পুলিশে খরব দেয়া আপনার দায়িত্বের মধ্যে পড়ে।

(Visited 203 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *