ই কমার্স নীতিমালা ২০২১

জাতীয় ডিজিটাল কমার্স (সংশোধিত) নীতিমালা ২০২০ এর অনুচ্ছেদ ৩.৩.৬ অনুসারে এ “ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা ২০২১” প্রণয়ন করা হলো।

মার্কেট প্লেস: অনলাইন প্লাটফর্ম যেখানে ক্রেতা বিক্রেতাগণ ভার্চুয়ালি পন্য ও সেবা প্রদর্শন, যাচাই বাছাই এবং ক্রয় বিক্রয় করে থাকেন।

এমএলএম: সরাসরি বিক্রয়কারি প্রতিষ্ঠান কর্তৃক ব্যবহৃত এক ধরনের বাজারজাতকরণ কৌশল যাতে বিদ্যমান পরিবেশকগণকে নতুন পরিবেশক নিয়োগ উৎসাহিত করা হয়।

ওয়ারেন্টি: গ্যারান্টির একটি রূপ/ এক ধরনের গ্যারান্টি যা কোন প্রস্তুতকারণ প্রতিষ্ঠান/ বিক্রেতা বিক্রয়ের পরে একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মেরামত বা ঠিক করে দেওয়া প্রতিশ্রুতি দিয়ে থাকে।

পন্য বা সেবা ক্রয় বিক্রয়ের সাধারণ নিয়মাবলী

ওয়েবসাইট বা মার্কেটপ্লেসে পন্য বা সেবা ক্রয় বিক্রয়, ফেরত, পরিবর্তন ইত্যাদি বিষয়ে সকল শর্তাবলী সুষ্পষ্ট ভাবে উল্লেখ করতে হবে।

ডিজিটাল কমার্স বা ই কমার্সের মাধ্যমে মাল্টি লেভেল মার্কেটিং (এমএলএম) বা নেটওয়ার্ক ব্যবসায় পরিচালনা করা যাবে না।

বিক্রেতার ওয়েবসাইটে কোন বিশেষ সফটওয়্যার বা কুকিজ থাকলে তা ক্রেতাকে পূর্বেই অবহিত করত হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমতি ব্যতিরেকে কোন ধরনের ভার্চুয়াল ওয়োলেট তৈরি করা যাবে না।

কোন ধরনের অফার, ডিসকাউন্ট , ফ্রি ডেলিভাররি বা অন্য কোন সুবিধা থাকলে তা পরিস্কারভাবে পন্যের বর্ণনায় থাকতে হবে।

ডেলিভারী টাইম বা ডেট লাইন

অতীতে দেখা গেছে কোন কোন ক্ষেত্রে ৩-৬ মাস ডেলিভারী টাইম নেয়। কোন কোন ই কমার্সের ক্ষেত্রে ৪৫ দিনে ডেলিভারী কথা বলে ৬ মাস পর ডেলিভারী হচ্ছে। নতুন ই কমার্স নীতিমালায় শহরের ক্ষেত্রে ৫ দিন এবং উপজেলা পর্যায়ে সর্বোচ্চ ১০ দিনের মধ্যে পন্য ডেলিভারী নিশ্চিতকরণের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

মূল্য পরিশোধ পদ্ধতি

অনলাইনে গেইটওয়ে ব্যবহার করে পন্য প্রাপ্তির পর মূল্য পরিশোধের নির্দেশনা। পন্য হাতে পেয়ে মূল্য পরিশোধের কথা বলা হয়েছে।

গিফটকার্ড, ওয়ালেট বা অর্থের মাধ্যম হিসাবে লেনদেন করা যায় এমন ওয়ালেট খোলার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন নিতে হবে।

চূড়ান্ত নীতিমালা অনুমোদন হচ্ছে। বিস্তারিত আসছে……………….

 

ই কমার্স নীতিমালা ২০২১ চূড়ান্ত: ডাউনলোড

(Visited 2,186 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *