জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার নিয়ম ২০২২

বর্তমান চলতি বছরে স্কুলে ছাত্র ছাত্রীদের ইউনিক আইডি প্রদানের লক্ষ্যে ফরম পূরণের নির্দেশনা বাস্তবায়িত হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় ছাত্র-ছাত্রীর জন্ম নিবন্ধন সনদ নম্বর বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ছাত্র-ছাত্রী বা সন্তানের জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করায় পিতা মাতার জন্ম নিবন্ধন করা জরুরী হয়ে পড়েছে। ২০০১ সালের পরে জন্মগ্রহণকারী নাগরিকের জন্ম নিবন্ধন করতে পিতা মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর প্রদান বাধ্যতামূলক করায় জন্ম নিবন্ধনের জন্য ইউনিয়ন পরিষদ/পৌর সভায় চাপ পড়ছে।

নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার নিয়ম ২০২২

আপনি বর্তমানে অনলাইনেই জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন করতে পারেন। এখন bdris.gov.bd/br/application লিংকে গিয়ে আপনি নতুন জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন করতে পারবেন। নিবন্ধক কার্যালয়ের জন্য আপনার জন্ম স্থান বা স্থায়ী ঠিকানার বিভাগ, জেলা, প্রভৃতি ধাপ পার হয়ে ওয়ার্ড পর্যন্ত নির্বাচন করতে হবে। অনলাইন জন্ম নিবন্ধনের আবেদন ফরম প্রথমে বাংলায় (ইউনিকোড) ও পরবর্তীতে ইংরেজিতে পূরণের পর প্রয়োজনীয় সম্পাদনা করে সংরক্ষণ বাটনে ক্লিক করুন।

আরও দেখুন: নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন পদ্ধতি (ভিডিও সহ)

সংরক্ষণ বাটনে ক্লিক করলেই আবেদন পত্রটি সংশ্লিষ্ট নিবন্ধক কার্যালয়ে স্থানান্তিরত হয়ে যাবে, আবেদনকারীর আর কোন সংশোধনের সুযোগ থাকবে না। অতঃপর পরবর্তী ধাপে প্রিন্ট বাটনে ক্লিক করলে আবেদন পত্রের মুদ্রিত কপি পাবেন। সনদের জন্য ১৫ দিনের মধ্যে উক্ত আবেদন পত্রে নির্দেশিত প্রত্যয়ন সংগ্রহ করে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় প্রমাণপত্রের সত্যায়িত কপিসহ নিবন্ধক অফিসে যোগাযোগ করুন। মোট কথা অনলাইনে আবেদন সম্পন্ন করে কাগজপত্রসহ স্থানীয় অফিসে জমা দিতে হবে। হয়তো আপনি বলতেই পারেন অনলাইনে কেন আবেদন করবো যদি জমা দিতে ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌর সভায় ম্যানুয়ালী যেতেই হয়। আপনি চাইলে এখন থেকে ফর্ম সংগ্রহ করে পূরণ করে জন্ম নিবন্ধক অফিসে কাগজপত্রসহ জমা দিতে পারেন। জন্ম নিবন্ধন ফরম 2022

জন্ম তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন করার নিয়ম ২০২২

শুধুন নতুন জন্ম নিবন্ধনের আবেদন নয়। আপনি অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের জন্যও আবেদন করতে পারেন। এজন্য bdris.gov.bd/br/correction লিংকে গিয়ে প্রয়োজনীয় তথ্য ও ডকুমেন্ট আপলোড করে জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের জন্য অনলাইন আবেদন সম্পন্ন করতে পারেন।

আরও দেখুন: জন্ম নিবন্ধন বয়স সংশোধন করার নিয়ম ২০২২

আপনার পিতা/মাতার নাম সংশোধন করতে হলে, নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করুন। যদি আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর থাকে, তাহলে তাদের জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন করে তাদের নাম সংশোধন করে আসতে হবে। এরপর যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন করার সময় আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে থাকেন, তবে তাদের নাম সংশোধন করার পর আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ পুনর্মুদ্রণ করলে সেখানে পিতা/মাতার সংশোধিত নাম দেখা যাবে। আর যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন করার সময় আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর না দিয়ে থাকেন, তবে আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বরের সাথে পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর ম্যাপ করতে হবে। পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর ম্যাপ করার পর আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ পুনর্মুদ্রণ করলে, সেখানে পিতা/মাতার সংশোধিত নাম দেখা যাবে।

যদি আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর না থাকে এবং আপনার জন্ম তারিখ 01/01/2001 এর পূর্বে হয়, তবে আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন করার সময় আপনার পিতা/মাতার নাম সংশোধন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনার পিতা/মাতা মৃত হলেও তাদের মৃত্যুর কোন প্রমাণপত্র দাখিল করতে হবে না।

যদি আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর না থাকে এবং আপনার পিতা/মাতা মৃত হয় এবং আপনার জন্ম তারিখ 01/01/2001 এর পরে হয়, তবে আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন করার সময় আপনার পিতা/মাতার নাম সংশোধন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনার পিতা/মাতার মৃত্যুর প্রমাণপত্র দাখিল করতে হবে। জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম ২০২২

আবেদনপত্র প্রিন্ট করার নিয়ম ২০২২

অনলাইনে নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার পর তা bdris.gov.bd/application/print এই লিংকে গিয়ে প্রিন্ট করে নিন। যদি আবেদন করার সাথে সাথেই প্রিন্ট করার অপশন আসে তবু যদি আপনি পরবর্তীতে প্রিন্ট করতে চান অ্যাপলিকেশন আইডি এবং জন্ম তারিখ ব্যবহার করে প্রিন্ট করে নিতে পারেন।

জন্ম নিবন্ধন আবেদন প্রিন্ট ২০২২

আরও দেখুন: জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড ২০২২ 

জন্ম নিবন্ধন তথ্য অনুসন্ধান করার নিয়ম ২০২২

আপনার যদি জন্ম নিবন্ধন থাকে বা অন্য কারও জন্ম নিবন্ধন যদি আপনি ডকুমেন্ট হিসাবে যাচাই করতে চান তবে প্রথমেই আপনাকে everify.bdris.gov.bd লিংকে যেতে হবে। লিংকে প্রবেশ করলে একটি ফরম আসবে সেখানে জন্ম নিবন্ধন নম্বর লিখতে হবে এবং জন্ম তারিখ প্রথমে সাল, মাস, দিন লিখে Search করলে জন্ম নিবন্ধনটি সঠিক কিনা তা যাচাই করা যাবে।

আরও দেখুন: জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই ২০২২

Enter “17 digits Birth Registration Number” and “Date of Birth” of a person to verify the Birth Record. জন্ম নিবন্ধন তথ্য যাচাই এর জন্য ১৭ অংকের জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ প্রবেশ করান এবং ক্যাপচা এন্ট্রি করে সার্চ করুন।

জন্ম নিবন্ধন এর প্রতিলিপির জন্য আবেদন করার নিয়ম ২০২২

আপনার জন্ম নিবন্ধনটি যদি হারিয়ে থাকেন বা নষ্ট হয়ে থাকে এজন্য আপনাকে থানায় ডাইরি করতে হবে না। আপনি অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন এর প্রতিলিপি বা কপির জন্য আবেদন করতে পারেন। হারিয়ে যাওয়া জন্ম নিবন্ধনের ফটোকপি বা প্রমানক যুক্ত করে ইউনিয়ন পরিষদে আবেদন ফরম জমা দিয়ে ফি পরিশোধ করলেই আরও একটি জন্ম নিবন্ধন কপি পেয়ে যাবেন।

জন্ম নিবন্ধন প্রতিলিপির জন্য আবেদন ২০২২

জন্ম নিবন্ধন সনদ পুনঃ মুদ্রন আবেদন করতে হলে আপনাকে bdris.gov.bd/br/reprint/add লিংকে গিয়ে প্রথমে জন্ম নিবন্ধন কপি পাওয়ার জন্য আবেদন সম্পন্ন করতে হবে এবং প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট সহ ইউনিয়ন পরিষদে জমা দিতে হবে।

আরও দেখুন: জন্ম/মৃত্যু সনদের প্রতিলিপির জন্য আবেদন ২০২২

জন্ম নিবন্ধন আবেদনপত্রের অবস্থা জানার উপায় ২০২২

আপনি নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন বা পুরাতন জন্ম নিবন্ধন নতুন করে পাওয়ার আবেদন অথবা যদি জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের জন্য আবেদন করে থাকেন তবে অনলাইনেই আবেদনের অবস্থা যাচাই করা যাবে। আবেদনটি কি অবস্থায় আছে, গৃহীত হয়েছে কিনা, রিজেক্ট হয়েছে কিনা, অনুমোদন হয়েছে কিনা এবং রেজিটার্ড হয়েছে কিনা তা আপনি অনলাইনে সহজেই জানতে পারেন। এজন্য আপনাকে bdris.gov.bd/br/application/status লিংকে ভিজিট করে আবেদন আইডি নম্বর এবং জন্ম তারিখ দিয়ে দেখুন এ ক্লিক করতে হবে।

আরও দেখুন: জন্ম নিবন্ধন আবেদনের বর্তমান অবস্থা জানার নিয়ম ২০২২

সার্টিফিকেট বাতিলের আবেদন করার নিয়ম ২০২২

জি জন্ম নিবন্ধন একাধিক থাকলে আপনাকে জন্ম নিবন্ধন বাতিল করতে হবে। যদি আপনার অনিচ্ছাকৃত ভুল হয়ে থাকে এবং আপনি কোন এলাকার জন্য নিবন্ধন বাতিল করতে চান সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দিয়ে ম্যানুয়াল আবেদন করতে পারবেন। অনলাইনে মৃত্যু সনদ বাতিলের আবেদন করা গেলেও অনলাইনে জন্ম সনদ বাতিলের আবেদন করা যায় না। তাই ম্যানুয়াল ফরম পূরণ করেই আপনাকে জন্ম নিবন্ধন বাতিলের আবেদন করতে হবে। যেহেতু জন্ম নিবন্ধন স্থানান্তর করা যায় না তাই এটি বাতিল করতে হবে। জন্ম নিবন্ধন বাতিল ফরম ২০২২

আরও দেখুন: জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন সনদ বাতিল করার নিয়ম ২০২২

বি:দ্র: এত সবকিছু পড়ার পর আপনার মনে হতেই পারে যে, যদি ম্যানুয়ালি আবেদন পত্র জমা দিতে হয় এবং ফি ম্যানুয়ালী জমা দিতে হয় তাহলে অনলাইনে আবেদন করতে যাবো কেন? ফরম সংগ্রহ করেই রেজিস্টারের অফিসে আবেদন করা যাবে কিন্তু মূল ব্যাপারটি হল জাতীয় পরিচয়পত্র এবং জন্ম সনদে অসংখ্য ভুল ধরা পরতেছে এবং পাওয়া গেছে। আপনার আবেদন আপনি নিজে করলে তাতে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা ০-১% এ চলে আসবে। তাই নিজের আবেদন নিজে করুন ভুল এড়িয়ে চলুন। ধন্যবাদ

(Visited 566 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published.

close