Birth Certificate Correction System 2022 । জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম

জন্ম নিবন্ধন বয়স সংশোধন করার নিয়ম–Step by Step Process to Correct Birth Certificate – Birth Certificate Correction

Birth Certificate Correction– Name and Date of Birth Correction Process – সাধারণ ভুল তথ্য এন্ট্রির কারণেই বেশির ভাগ জন্ম সনদে ভুল পরিলক্ষিত হয়। তবে অনিচ্ছাকৃত ভুলের কারণেও জন্ম সনদ সংশোধনের প্রয়োজন পড়ে। জন্ম সনদ সর্বোচ্চ ৪ বার সংশোধন করা যাবে এ ঘোষণা কর্তৃপক্ষ দিয়েছে https://bdris.gov.bd/br/correction এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। সুতরাং জন্ম সনদ সংশোধনের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে।

আপনার পিতা/মাতার নাম সংশোধন করতে হলে আপনাকে বেশ কিছু নিয়ম অনুসরণ বা পদক্ষেপ নিতে হবে। যদি আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর থাকে, তাহলে তাদের জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন করে তাদের নাম সংশোধন করে আসতে হবে। এরপর যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন করার সময় আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে থাকেন, তবে তাদের নাম সংশোধন করার পর আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ পুনর্মুদ্রণ করলে সেখানে পিতা/মাতার সংশোধিত নাম দেখা যাবে। আর যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন করার সময় আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর না দিয়ে থাকেন, তবে আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বরের সাথে পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর ম্যাপ করতে হবে।

পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর ম্যাপ করার পর আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ পুনর্মুদ্রণ করলে, সেখানে পিতা/মাতার সংশোধিত নাম দেখা যাবে। যদি আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর না থাকে এবং আপনার জন্ম তারিখ 01/01/2001 এর পূর্বে হয়, তবে আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন করার সময় আপনার পিতা/মাতার নাম সংশোধন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনার পিতা/মাতা মৃত হলেও তাদের মৃত্যুর কোন প্রমাণপত্র দাখিল করতে হবে না। যদি আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর না থাকে এবং আপনার পিতা/মাতা মৃত হয় এবং আপনার জন্ম তারিখ 01/01/2001 এর পরে হয়, তবে আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন করার সময় আপনার পিতা/মাতার নাম সংশোধন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনার পিতা/মাতার মৃত্যুর প্রমাণপত্র দাখিল করতে হবে।

জন্ম সনদ সংশোধন করতে চাইলে প্রথমেই আপনার নিজের জন্ম সনদ নম্বর এবং জন্ম তারিখের নোট নিয়ে নিতে হবে। যে তথ্যটি সংশোধন করতে চান তার প্রমানক হিসাবে ডকুমেন্ট সাথে নিয়েই অনলাইনে জন্ম সনদ সংশোধনের আবেদন করতে বসতে হবে। আপনার ডকুমেন্ট স্ক্যান করে নিন এবং কম্পিউটার বা মোবাইলে ইন্টারনেট সংযোগ নিশ্চিত করে আবেদন করতে বসুন।

ঘরে বসেই অনলাইনে জন্ম সনদ সংশোধনের আবেদন করুন / অনলাইনে জন্ম সনদ সংশোধনের আবেদন করুন নিজে বা কোন কম্পিউটারের দোকান থেকেই।

অনলাইনে আবেদন করে নিচের ফরমটি স্বাক্ষর করে ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভায় ফি দিয়ে জমা দিয়ে সংশোধিত জন্ম সনদ এর জন্য ২/৪ দিন অপেক্ষা করতে হবে। ব্যাস এটুকুই।

Birth Certificate Correction 2022

Caption: Birth Certificate Correction Process is not so tough to do this by online process-See Video to clear yourself to do this.

তথ্য সংশোধনের জন্য আপনি যে সকল ডকুমেন্ট ব্যবহার করতে পারেন।

  1. পিতার জন্ম নিবন্ধন সনদ ।
  2. মাতার জন্ম নিবন্ধন সনদ ।
  3. পিতার জাতীয় পরিচয়পত্র ।
  4. মাতার জাতীয় পরিচয়পত্র ।
  5. ই পি আই কার্ড(শিশুর টিকা কার্ড)।
  6. স্থায়ী ঠিকানার প্রমাণ।
  7. বর্তমান ঠিকানার প্রমাণ।
  8. পিতার পাসপোর্টের স্ক্যান করা কপি।
  9. মাতার পাসপোর্টের স্ক্যান করা কপি।
  10. পিতার পাসপাের্ট সাইজের ছবি।
  11. মাতার পাসপাের্ট সাইজের ছবি।
  12. নিবন্ধনাধীন ব্যক্তির পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  13. নিবন্ধনাধীন ব্যক্তির এস এস সি সার্টিফিকেটের স্ক্যান করা কপি।
  14. পিতার মৃত্যুর প্রমাণ।
  15. মাতার মৃত্যুর প্রমাণ।
  16. নিবন্ধনাধীন ব্যক্তির জাতীয় পরিচয়পত্র।
  17. ইস্যু সম্পর্কিত ফাইল (যদি পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করেন)।
  18. প্রাথমিক স্কুল সার্টিফিকেট (পিএসসি)
  19. জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি)
  20. নিবন্ধনাধীন ব্যক্তির পাসপাের্ট সাইজের ছবি। 
  21. নিবন্ধনাধীন ব্যক্তির এস এস সি সার্টিফিকেটের স্ক্যান করা কপি। 
  22. পিতার মৃত্যুর প্রমাণ।
  23. মাতার মৃত্যুর প্রমাণ ।
  24. নিবন্ধনাধীন ব্যাক্তির জাতীয় পরিচয়পত্র ।
  25. ইস্যু সম্পর্কিত ফাইল (মৃতুতে এনালগ ফাইল ইস্যুর তথ্য)।
  26. প্রাথমিক স্কুল সার্টিফিকেট (পিএসসি)
  27. জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি)
  28. চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের ছাড়পত্র বা চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান প্রদত্ত জন্ম সংক্রান্ত সনদের সত্যায়িত কপি বা পুরণকৃত আবেদনপত্রে বার্থ এটেডেন্সের এর প্রত্যয়ন বা ইপিআই (টিকা কাড) কার্ডের সত্যায়িত আনুলিপি।
  29. পিতা/ মাতা/ পিতামহ/ পিতামহীর দ্বারা স্বনামে স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে ঘােষিত আবাস স্থলের বিপরীতে হালনাগাদ কর পরিশােধের প্রমানপত্র বা পিতা/ মাতা/ পিতামহ/ পিতামহীর জাতীয় পরিচয়পত্র।
  30. জন্ম নিবন্ধনাধীন ব্যক্তির পিতার জন্ম নিবন্ধন নম্বরসহ সনদ ।
  31. জন্ম নিবন্ধনাধীন ব্যক্তির মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বরসহ সনদ ।
  32. চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের ছাড়পত্র বা চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান প্রদত্ত জন্ম সংক্রান্ত সনদের সত্যায়িত কপি বা পূরণকৃত আবেদনপত্রে ব্যর্থ এটেন্ডেন্স এর প্রত্যায়ন বা ইপিআই (টিকা কার্ড) কার্ডের সত্যায়িত অনুলিপি ।
  33. পিতা/ মাতা/ পিতামহ পিতামহীর দ্বারা স্বনামে স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে ঘােষিত আবাস স্থলের বিপরীতে হালনাগাদ কর পরিশােধের প্রমানপত্র বা পিতা/ মাতা/ পিতামহ পিতামহীর জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধনাধীন ব্যক্তির পিতার জন্ম নিবন্ধন নম্বরসহ সনদ। 
  34. জন্ম নিবন্ধনাধীন ব্যক্তির মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বরসহ সনদ। 
  35. জন্ম নিবন্ধনাধীন ব্যক্তির মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বরসহ সনদ।

জন্ম সনদ সংশোধনের আবেদন করে কিভাবে?

জন্ম সনদ সংশোধন আবেদন – খুব সহজ ব্যাপার প্রথমে Birth Registration লিখে গুগল কর এবং ২য় লিংক নতুন জন্ম নিবন্ধনের জন্য আবেদন এ ক্লিক করুন। জন্ম নিবন্ধন মেন্যূতে টাচ করলেই অনেকগুলো মেন্যু দেখাবে। সেখান থেকে মৃত্যু নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন এ ক্লিক করুন। জন্ম নিবন্ধন নম্বর * এবং জন্ম তারিখ * ইনপুট করে অনুসন্ধান বা Search Button এ ক্লিক করুন। দেখবেন সনদধারীর নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, জন্ম তারিখ ইত্যাদি দেখাবে। নির্বাচন করুন এ ক্লিক করুন। কনফার্ম এ ক্লিক করুন। দেশ * বিভাগ * জেলা * সিটি কর্পোরেশন, ক্যান্টনমেন্ট / উপজেলা * পৌরসভা / ইউনিয়ন * অফিস * ইত্যাদি তথ্য সিলেক্ট করুন। পরবর্তীতে ক্লিক করুন। সংশোধিত তথ্য দিন। জন্মস্থানের ঠিকানা, স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা, আবেদনকারীর তথ্য নিজ দিন।  মোবাইল নম্বর এবং সংযোজন বা সংযুক্তি দিন। ফি আদায় সিলেক্ট করুন এবং সাবমিট দিন। ব্যাস হয়ে গেল। বিষয়টি না বুঝে থাকলে আপনি ভিডিও দেখে নিন।

মনে রাখবেন সংযুক্তি দেওয়ার ক্ষেত্রে সংযুক্তি বা সংযোজন যেন রেলিভেন্ট হয়। নাম বা জন্ম তারিখ সংশোধনের ক্ষেত্রে এস.এস.সি বা এইচ.এসসি সনদ বা ভোটার আইডি বা জাতীয় পরিচয়পত্র কপি প্রদান করবেন। কর্তৃপক্ষ চাইলে অতিরিক্ত ডকুমেন্ট চাইতে পারে এবং তা সরবরাহ করতে হবে।

(Visited 21,905 times, 3 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published.

close