আষাঢ় মাসে পাট চাষে করণীয়।

পাটের বীজ উৎপাদনের জন্য ১০০ দিন বয়সের পাট গাছের এক থেকে দেড় ফুট ডগা কেটে নিয়ে দুটি গিফসহ ৩/৪ টুকরা করে ভেজা জমিতে দক্ষিণমুখী কাত করে রোপন করতে হবে।

রোপন করা টুকরোগুলো থেকে ডালপাতা বের হয়ে নতুন চারা হবে। পরবর্তীতে এসব চারায় প্রচুর ফল ধরবে এবং তা থেকে বীজ পাওয়া যাবে।

পাট চাষ নীতিমালা

১. এ সময় গাছের বয়স চার মাস হলে ক্ষেত্রে পাট কেটে নিতে হবে।

২. পাট গাছ কাটার পর চিকন ও মোটা পাট গাছ আলাদা করে আঁটি বেঁধে দুই/ তিন দিন দাঁড় করিয়ে রাখতে হবে।

৩. পাতা ঝরে গেলে ৩/৪ দিন পাট গাছগুলোর গোড়া একফুট পানিতে ডুবিয়ে রাখার পর পরিস্কার পানিতে জাগ দিতে হবে।

৪. পাট পচে গেলে পানিতে আঁটি ভাসিয়ে আঁশ ছাড়ানোর ব্যবস্থা নিতে হবে। এতে পাটের আঁশের গুনাগুণ ভালো থাকবে।

৫. ছাড়ানো আঁশ পরিস্কার পানিতে ধুয়ে বাঁশের আড়ে শুকাতে হবে।

সতর্কতা

যে সব জায়গায় জাগ দেয়ার পানির অভাব সেখানে রিবন রেটিং পদ্ধতিতে পাট পচাতে পারেন। এতে আঁশের মান ভালো হয় এবং পচন সময় কমে যায়।

করোনাকালীন সময়ে মাস্ক পরুন এবং অন্যকে পরতে উৎসাহিত করুন। করোনা কালীন সময়ে স্বাস্থ্য বিধি না মানলে, মৃত্যু ঝুঁকি আছে।

সূত্র: কৃষি তথ্য সার্ভিস রাজশাহী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *