জিপিএফ কর্তনের নিয়ম

জিপিএফ কর্তনের নিয়ম ২০২২

জিপিএফ এ আইবাস চালু হওয়ার পূর্বে সর্বোচ্চ মূল বেতন পর্যন্ত কর্তন করা যেত। কেউ কেউ মুল বেতনের পুরোটাই কর্তন করতেন। যারা সর্বোচ্চ কর্তন করতে তাদের জিপিএফ ব্যালেন্স ৩০-৮০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হয়ে গেছে। কর্মচারীদের ক্ষেত্রেও কারও কারও ৩০ লক্ষ টাকা জিপিএফ জমা রয়েছে। বর্তমানে মূল বেতনের ৫%-২৫% পর্যন্ত কর্তন করা যায়। অনলাইন পদ্ধতি বা আইবাস++ প্রবর্তন হওয়ার কারণে কোনভাবেই কেউ আর বেশি অর্থ কর্তন করতে পারছে না।

জিপিএফ এ চাঁদা কর্তনের নিয়ম কি?

প্রথমত আপনাকে রাজস্বখাতভূক্ত সরকারি কর্মচারি হতে হবে। যে সকল প্রতিষ্ঠান পেনশনের আওতাভূক্ত নয় তারা জিপিএফ চাঁদা কর্তন করতে পারে না। তাদের জন্য রয়েছে সিপিএফ। দ্বিতীয়ত আপনাকে চাঁদা বা জিপিএফ কর্তন করতে হলে একটি জিপিএফ হিসাব খুলতে হবে। জিপিএফ হিসাব আইবাস++ খোলার পরই আপনি প্রতিমাসে নির্ধারিত হারে চাঁদা জিপিএফ এ কর্তন করতে পারবেন। ibas++: অনলাইনে কর্মচারীদের জিপিএফ হিসাব খোলার নিয়ম ২০২২

কেন সবাই সর্বোচ্চ কর্তন করতে চায়?

জিপিএফ ই বর্তমানে এমন একটি বিনিয়োগ মাধ্যমে যেখানে সর্বোচ্চ ১৩% পর্যন্ত মুনাফা পাওয়া যায়। ১৩% যদি সকল ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়। স্লাবভিত্তিক মুনাফা নির্ধারণ করার এখন ১৫লক্ষ টাকা পর্যন্ত ১৩%, ৩০ লক্ষ পর্যন্ত ১২% এবং ৩০ লক্ষ এর উপরে হলে ১১% মুনাফা দেয়া হয়। তাদের সাধ্য আছে তারা কিন্তু এখনও জিপিএফ এ মূল বেতনের সর্বোচ্চ অর্থ ২৫% কর্তন করে। প্রতিবছর বেতন বৃদ্ধি হলেই হিরিক পড়ে নতুন বেসিক অনুসারে জিপিএফ কর্তনের। সর্বোচ্চ মুনাফা ও নিরাপদ বিনিয়োগ সে কারণেই সবাই জিপিএফ এ চাঁদা বাড়ানোর পক্ষে।

জিপিএফ মুনাফার হার ২০২১-২০২২

জিপিএফ মুনাফার হার

চাঁদা কর্তন সিলিং মূল বেতনের ৫-২৫% পর্যন্ত

কর্মচারীরা কেন জিপিএফ হতে লাভবান হচ্ছে না?

জিপিএফ এ অর্থ কর্তন নিম্নগ্রেডের কর্মচারীদের জন্য একটি বিলাসিতা ছাড়া কিছু নয়। ১১-২০ গ্রেডের কর্মচারীদের বেতন পরিমান মাসিক বেতন তা দিয়ে তাদের সংসার চালানোই দায়। বেশির ভাগ কর্মচারীদের জিপিএফ তথ্য ঘাটলে দেখা যাবে যে, তারা সর্বনিম্ন স্কেলে অর্থাৎ মূল বেতনের মাত্র ৫% কর্তন করছে। একটু বেশি কর্তন করলেই তার তিনটি জিপিএফ অগ্রিম চালমান। ব্যক্তিগত বা সাংসারিক প্রয়োজন হলেও জিপিএফ থেকে তাদের অর্থ উত্তোলন করতে হচ্ছে। স্বল্প বেতন হওয়ার দরূন জিপিএফ কর্মচারীদের জন্য খুব একটা সুফল বয়ে আনছে না। অবসর কালে ১-৫ লক্ষ টাকার বেশি জিপিএফ চূড়ান্ত উত্তোলন পান না।

কোন মাসে জিপিএফ চাঁদা বৃদ্ধি করা যাবে?

জিপিএফ বিধিমালা ১৯৭৯ মোতাবেক জিপিএফ চাঁদা প্রতি বছর জুন মাসে পরিবর্তন করা যাবে। কিন্তু বর্তমানে আইবাস++ এ জুন ও জুলাই এ দু’মাসেই চাঁদার হার পরিবর্তন করা যাচ্ছে। আপনি যদি নতুন বেসিক এ জিপিএফ চাঁদা বৃদ্ধি করতে চান তবে জুলাই মাসে বৃদ্ধি করতে হবে।

যদি আপনি পুরাতন বেসিকেই জিপিএফ চাঁদা হ্রাস বা বৃদ্ধি করতে চান তবে আপনি জুন মাসেই পরিবর্তন করতে পারবেন।

১১% এ নেমে আসলো জিপিএফ মুনাফার হার!

(Visited 975 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *