নতুন ভ্যাকসিন যারা গ্রহন করতে পারবেন।

৩৫ বছরের উর্ধ্বে সকল সাধারণ জনগোষ্ঠীকে রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আনতে হবে। রেজিস্ট্রেশনকারীদের মধ্যে বেশী বয়সী জনগোষ্ঠী হতে ক্রমান্বয়ে কম বয়সী জনগোষ্ঠীকে পর্যায়ক্রমে প্রাধিকার অনুযায়ী এসএমএস প্রদানের মাধ্যমে ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচী (ইপিআই)

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

মহাখালী, ঢাকা-১২১২

স্মারক নং: স্বা: অধি:/ইপিআই/ফিল্ড সার্ভিস/ কোভিড-১৯/২০২১/১১৫০; তারিখ: ০৬/৭/২০২১

বিষয়: আসন্ন মাডার্না এবং সাইনোফার্ম কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশন বিষয়ক নিদের্শনা।

আপনি অবগত আছেন যে, গত ২৭ শে জানুয়ারি ২০২১ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশণের কর্মসূচি উদ্বোধন করার পর ৭ই ফেব্রুয়ারি ২০২১ সারা দেশব্যাপী একযোগে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম শুরু হয়। এই মহাকর্মযজ্ঞে প্রত্যক্ষভাবে আপনাদের অসামান্য অবদান ও সহযোগিতার জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে আন্তরিক অভিনন্দন।

ইতোমধ্যে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের পক্ষ থেকে কোভ্যাক্স এর মাধ্যমে পচিঁশ লক্ষ ডোজ মর্ডানা ভ্যাকসিন ও চীন থেকে বিশ লক্ষ ডোজ সাইনফার্ম (Verocell) আমদের হাতে এসে পৌছেছে। অতি শীঘ্র সারাদেশের সকল সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল/ সরকারি জেনারেল হাসপাতাল /জেলা সদর হাসপাতাল/ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের /উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও সিটি কর্পোরেশনের নির্দিষ্ট টিকাদান কেন্দ্রগুলোর মাধ্যমে উদ্দিষ্ট জনগোষ্ঠীকে টিকা প্রদান করা হবে।

ভ্যাকসিন বিতরণ:

১। ১২টি সিটি কর্পোরেশন এলাকার নির্দিষ্ট টিকা কেন্দ্রে (ঢাকা, উত্তর দক্ষিণ, গাজীপুর, নারায়গঞ্জ, ময়মনসিংহ, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, রংপুর, সিলেট, বরিশাল) মর্ডানার টিকা দেয়া হবে।

২। সকল জেলা ও উপজেলায় সাইনোফার্ম (Verocell) টিকা দেয়া হবে।

রেজিস্ট্রেশন ব্যতীত কেউ টিকা গ্রহণ করতে পারবেন না।

ভ্যাকসিন গ্রহণে উদ্দিষ্ট জনগোষ্ঠীর তালিকা-

১) ৩৫ বছরের উর্ধ্বে সকল সাধারণ জনগোষ্ঠীকে রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আনতে হবে। রেজিস্ট্রেশনকারীদের মধ্যে বেশী বয়সী জনগোষ্ঠী হতে ক্রমান্বয়ে কম বয়সী জনগোষ্ঠীকে পর্যায়ক্রমে প্রাধিকার অনুযায়ী এসএমএস প্রদানের মাধ্যমে ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে।

২) বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বীরঙ্গণা।

৩) নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি।

৪) রাষ্ট্র পরিচালনার নিমিত্ত অরিহার্য কার্যালয় তথা মন্ত্রণালয়, সচিবালয়, বিচারিক ও প্রশাসনিক কার্যালয় সমূহের কর্মকর্তা।

৫) প্রতিরক্ষা কার্যে নিয়োজিত সেনাবাহিনী, নৌ বাহিনী ও বর্ডার গার্ড, বাংলাদেশ ইত্যাদি বাহিনীর সদস্যগণ, কোষ্ট গার্ড ও প্রেসিডেন্ট গার্ড রেজিমেন্ট।

৬) আইন শৃংখলা রক্ষকারী বাহিনী তথা পুলিশ, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন, ট্রাফিক পুলিশ, আনসার, ভিডিপি;

সরকারি গুরুত্বপূর্ণ ও জরুরি সেবা কার্যে কর্মরতদের ভ্যাকসিন নেয়ার অনুমতি রয়েছে। বিস্তারিত জানতে স্বাস্থ্য বিভাগের আদেশ দেখুন।

নতুন ভ্যাকসিন যারা গ্রহন করতে পারবেন: ডাউনলোড

(Visited 166 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *